২০২৩ শিক্ষাবর্ষে লটারির মাধ্যমেই শিক্ষার্থী ভর্তি


সাহেব-বাজার ডেস্ক : সরকারি-বেসরকারি সব স্কুলেই নির্ধারিত ফরমে অনলাইনে ভর্তির আবেদন করতে হবে। আগামী ১৬ নভেম্বর থেকে শুরু হয়ে ৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত চলবে আবেদন প্রক্রিয়া। পরে ১০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে সরকারি স্কুলের ভর্তির লটারি। আর ১৩ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে বেসরকারি স্কুলের ভর্তির লটারি। কোনো স্কুল ভর্তি পরীক্ষা নিতে পারবে না, থাকবে না পরিচালনা পর্ষদের কোনো কোটা।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, আগের মতোই থাকছে ভর্তি ফি। সে অনুযায়ী রাজধানীর এমপিওভুক্ত স্কুলে ভর্তি ফি পাঁচ হাজার, নন-এমপিওতে সর্বোচ্চ ৮ হাজার এবং ইংরেজি মাধ্যমে ১০ হাজার টাকা নেওয়া যাবে। আর অন্যান্য মেট্রোপলিটন শহরে তিন হাজার টাকার বেশি নেওয়া যাবে না।

ভর্তি বিজ্ঞপ্তি কবে জারি হবে জানতে চাইলে মহাপরিচালক আরও বলেন, শিগগিরই মন্ত্রণালয়ে এ বিষয়ে সভা হবে। সভায় অনুমোদন পেলে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে। আমরা ইতোমধ্যে খসড়া করেছি। এদিকে বেশ কয়েকটি স্কুল নামে-বেনামে ভর্তি ফি ছাড়াও অতিরিক্ত ফি আদায় করে বলে অভিযোগ আছে। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, এটি ঠেকাতে ভর্তির সময় মন্ত্রণালয়কে নিয়মিত নজরদারি করতে হবে।

এদিকে আগামী বছর বিভিন্ন শ্রেণিতে নতুন শিক্ষার্থী ভর্তির জন্য টেলিটকের ওয়েবসাইটে সরকারি-বেসরকারি স্কুলগুলোর তথ্য হালনাগাদ করার নির্দেশ দিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর। আগামীকাল ১৪ নভেম্বরের মধ্যে ওয়েবসাইটে যঃঃঢ়ং://মংধ.ঃবষবঃধষশ.পড়স.নফ প্রবেশ করে মহানগরী ও জেলা সদরের সদর উপজেলা পর্যায়ের স্কুলগুলোর তথ্য আপলোড করতে বলা হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে ভর্তি কমিটির সদস্য সচিব ও মাউশির উপপরিচালক মোহাম্মদ আজিজ উদ্দিন বলেন, ২০২৩ শিক্ষাবর্ষে বিভিন্ন শ্রেণিতে শিক্ষার্থী ভর্তির জন্য সারাদেশের সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের (মহানগরী ও জেলা সদরের সদর উপজেলা পর্যায়ের) হালনাগাদ তথ্য টেলিটক বাংলাদেশ লিমিটেডের দেওয়া ইউজার আইডি ও পাসওয়ার্ড দিয়ে নির্ধারিত ওয়েবসাইটে লিংকে প্রবেশ করে আপলোড করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। আগামী ১৪ নভেম্বর পর্যন্ত ওই লিংকে প্রবেশ করে তথ্য আপলোড করা যাবে।

 

এসবি/এমই