হাভানা সিনড্রোম এবার ভারতে

  • 2
    Shares

সাহেব-বাজার ডেস্ক : গত পাঁচ বছরে প্রায় ২০০ জন যুক্তরাষ্ট্রের সরকারি কর্মী এবং তাদের পরিবারের সদস্যরা হাভানা সিনড্রোমে আক্রান্ত হয়েছেন। এবার ভারতেও আক্রান্তের খবর মিলেছে। যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা বিভাগ সিআইএর এক কর্মকর্তা ভারতে এসেছিলেন। তার শরীরে এ মাসে হাভানা সিনড্রোমের প্রায় সব উপসর্গই দেখা গেছে। নয়াদিল্লিতে তার চিকিৎসা হয়েছে।

হাভানা সিনড্রোমে প্রথমে অদ্ভূত সব শব্দ কানে বাজতে পারে। তারপর তীব্র মাথা যন্ত্রণা। সেখান থেকে ক্লান্তি ভাব, মাথা ঘোরা, ঘুমের সমস্যা এবং একদম শেষে শ্রবণশক্তি কমে যাওয়া। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার

যুক্তরাষ্ট্রের ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস সম্প্রতিই এই রোগের কারণে তার ভিয়েতনাম সফর বাতিল করতে বাধ্য হন। কমলা ভিয়েতনামে যাওয়ার আগে থেকেই সেখানে থাকা যুক্তরাষ্ট্রের কর্মীরা একের পর এক এই রোগে আক্রান্ত হতে শুরু করেন। সেটা গত মাসের ঘটনা। তবে হাভানা সিনড্রোম প্রথম দেখা দিয়েছিল পাঁচ বছর আগে।

স্নায়ুজনিত এই রোগ কিউবার রাজধানী হাভানায় প্রথম দেখা যায় ২০১৬ সালের শেষ দিকে। রাশিয়া, চীন, অস্ট্রিয়া এবং আরও বেশ কয়েকটি দেশে আমেরিকার চর এবং কূটনৈতিক কর্মকর্তা এই রোগে আক্রান্ত হতে শুরু করেন। হাভানায় সংখ্যাটা ছিল সবচেয়ে বেশি।

আক্রান্ত ব্যক্তিরা জানিয়েছিলেন, তারা অদ্ভূত সব শব্দ শুনতে পাচ্ছেন। তার সঙ্গে মাথা যন্ত্রণা, মাথা ঘোরা, বমি ভাব, ক্লান্তি, অনিদ্রার মতো উপসর্গও ছিল প্রত্যেকেরই। শেষে সবারই শ্রবণশক্তি ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

২০১৬ সালের পর থেকে গত পাঁচ বছরে প্রায় ২০০ জন যুক্তরাষ্ট্রের সরকারি কর্মকর্তা এবং তাদের পরিবারের সদস্যরা এই ধরনের রোগে আক্রান্ত হয়েছেন। ২০১৯ সালের একটি সমীক্ষা আবার দাবি করছে, এই সব রোগীদের মস্তিষ্কে পরে অস্বাভাবিকতাও দেখা গিয়েছিল।

এই রোগের কারণ কী, তা অবশ্য এখনও স্পষ্ট নয়। কেউ বলেছেন মানসিক চাপ থেকে তৈরি হয়েছে সমস্যা। যদিও ন্যাশনাল অ্যাকাডেমি অব সায়েন্সের দাবি, বিশেষ ধরনের মাইক্রোওয়েভ বিকিরণও এই রোগের কারণ হতে পারে।

এসবি/এআইআর


  • 2
    Shares