স্টার্ট-আপ উদ্যোক্তাদের জন্য সুখবর


সাহেব-বাজার ডেস্ক: স্টার্ট-আপ উদ্যোক্তাদের ক্ষেত্রে টার্নওভার করহার দশমিক ৬০ শতাংশের পরিবর্তে দশমিক ১ শতাংশ করার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে ২০২২-২৩ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে। এছাড়া ব্যয় সংক্রান্ত বিধিনিষেধ প্রত্যাহার এবং স্টার্ট-আপ কোম্পানির লোকসান ৯ বছর পর্যন্ত সমন্বয়ের বিধান প্রস্তাব করা হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে জাতীয় সংসদে স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বাজেট উপস্থাপন শুরু করেন।

বাজেট বক্তব্যে অর্থমন্ত্রী বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের স্বপ্নকে বহুমাত্রিক রূপ দিতে স্টার্ট-আপ উদ্যোগকে বিশেষ প্রণোদনা প্রদানের মাধ্যমে সম্প্রসারিত করা প্রয়োজন। প্রস্তাবিত বাজেটে স্টার্ট-আপ উদ্যোক্তাদের জন্য শুধু আয়কর রিটার্ন দাখিল ছাড়া অন্য সব রিপোর্টিংয়ের বাধ্যবাধকতা হতে অব্যাহতি এবং স্টার্ট-আপ কোম্পানির লোকসান ৯ বছর পর্যন্ত সমন্বয়ের বিধান প্রস্তাব করছি।

তিনি বলেন, এছাড়াও আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে প্রতিযোগিতার মাধ্যমে ব্যবসার প্রসারের জন্য স্টার্ট-আপ উদ্যোক্তাদের ক্ষেত্রে ব্যয় সংক্রান্ত বিধিনিষেধ প্রত্যাহার ও টার্নওভার করহার দশমিক ৬০ শতাংশের পরিবর্তে দশমিক ১ শতাংশ করার প্রস্তাব করছি।

জাতীয় সংসদে আজ বিকেল ৩টায় ২০২২-২৩ অর্থবছরের জন্য ৬ লাখ ৭৮ হাজার ৬৪ কোটি টাকার বাজেট উপস্থাপন করেছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। এর আগে আজ দুপুরে ২০২২-২৩ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট অনুমোদন দেয় মন্ত্রিসভা।

এসবি/জেআর