সুস্বাস্থ্যের জন্য যে সব খাবার খাবেন

  • 1
    Share

সাহেব-বাজার ডেস্ক : ওমেগা-৬ ফ্যাটি অ্যাসিড হচ্ছে শরীরের জন্য উপকারী এক ধরনের ফ্যাট। সবচেয়ে পরিচিত ওমেগা ৬-এর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে— লিনোলিক অ্যাসিড ও গামা লিনোলেনিক অ্যাসিড। আর এগুলোর মধ্যে প্রথমটি হচ্ছে— শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় পুষ্টি উপাদান।

বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে, শরীরের জন্য ওমেগা-৬ উপাদানের অনেক উপকার রয়েছে। এটি শরীরের প্রদাহ কমাতে সহায়তা করে। আর এটি ফ্যাট হলেও তা হার্টের জন্য উপকারী ফ্যাট হিসেবে বিবেচিত হয় এবং এডিএল কোলেস্টেরলের মাত্রা কমিয়ে দিতে পারে।

সুস্থ থাকার জন্য নিয়মিত ওমেগা-৬ সমৃদ্ধ খাবার খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন বিশেষজ্ঞরা। তাই আজ জানুন যেসব খাবারে মিটবে আপনার ওমেগা ৬-এর ঘাটতি—

১. আখরোট: আখরোটে প্রচুর পরিমাণে ওমেগা-৬ পাওয়া যায়। এর প্রতি ২৮ গ্রামে প্রায় ১১ গ্রাম পর্যন্ত ওমেগা-৬ পাওয়া যায়। তাই প্রতিদিন কিছু পরিমাণে এই বাদাম খাওয়া আপনার খাদ্যের গুণগতমান বাড়াতে, তৃপ্তি দিতে এবং হৃদরোগে উপকার করতে পারে।

২. আঙুরের তেল: আঙুরের তেলের প্রতি এক চামচে প্রায় ৯ গ্রামের বেশি ওমেগা-৬ থাকতে পারে। এ ছাড়া এটি ভিটামিন ইর অনেক ভালো উৎস। আর জার্নাল ফুডসের একটি গবেষণায় দেখা গেছে যে, আঙুরের তেল অ্যান্টিঅক্সিডেন্টসমৃদ্ধ, প্রদাহবিরোধী, অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল এবং অ্যান্টিটিউমোরাল ক্রিয়াকলাপে উপকারী।

৩. ভুট্টার তেল: ভুট্টার তেলও আপনার জন্য হতে পারে ওমেগা ৬-এর খুব ভালো উৎস। এর প্রতি চামচে প্রায় ৭ গ্রামের মতো ওমেগা-৬ পাওয়া যায়। তাই সুস্বাস্থ্যের জন্য আপনি মাখনজাতীয় তেলের পরিবর্তে ভুট্টার তেল ব্যবহার করতে পারেন।

৪. সূর্যমুখী বীজ: প্রতি ২৮ গ্রাম সূর্যমুখী বীজে প্রায় ৬ গ্রামের বেশি ওমেগা-৬ থাকতে পারে। এ ছাড়া গবেষণায় দেখা গেছে যে, এতে ভিটামিন বি৬, ম্যাগনেসিয়াম, নিয়াসিন, আয়রন, ফাইনোলিক অ্যাসিড, ফ্লেভোনয়েডস এবং টোকোফেরোলসহ প্রচুর পরিমাণে পুষ্টি উপাদান রয়েছে।

তাই আপনার সুস্বাস্থ্যের জন্য বেছে নিতে পারেন সুস্বাদু এ বীজটি। তথ্যসূত্র: দ্য হেলদি ডটকম

এসবি/এআইআর


  • 1
    Share