সুন্দরবনের পর্যটনকেন্দ্র ও সাফারি পার্ক বন্ধ ঘোষণা

  • 3
    Shares

সাহেব-বাজার ডেস্ক : করোনার বিস্তার প্রতিরোধে সুন্দরবনে সব ধরনের পর্যটক প্রবেশ বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। শুক্রবার থেকে এ আদেশ কার্যকর করা হয়েছে। একই সঙ্গে জেলা প্রশাসক ও উপজেলা প্রশাসকের এক বিজ্ঞপ্তি বলা হয়, সুন্দরবনসহ জেলার সব পর্যটনকেন্দ্র পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এদিকে বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে গাজীপুরের শ্রীপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কও।

এর আগে করোনা মহামারির কারণে ২০২০ সালের মে মাস থেকে সুন্দরবনসহ সাতক্ষীরা জেলার পর্যটনকেন্দ্রগুলো বন্ধ ঘোষণা করা হয়। এতে জেলার শ্যামনগরের আশাক লীনা, কারামোড়া, দেবহাটার রুপসী ম্যানগ্রোভসহ সব পর্যটনকেন্দ্র বন্ধ হয়ে যায়। একপর্যায়ে করোনা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হলে ১ নভেম্বর থেকে সুন্দরবনে পর্যটক প্রবেশের ঘোষণা দেওয়া হয়। এরপর থেকে গেল শীত মৌসুমে পর্যটন এলাকাগুলো সচল হয়ে ওঠে।

সুন্দরবনের সাতক্ষীরার বুড়িগোয়ালিনী পর্যটকবহনকারী ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতি আবদুল আলিম জানান, তাঁদের ওই এলাকায় পাঁচ শতাধিক ট্রলার রয়েছে। এর ওপর তাঁদের ভরণপোষণ চলে। সুন্দরবনে পর্যটক ঢোকা বন্ধ করে দেওয়ায় তাঁদের পরিবার নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করতে হবে।

সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক এস এম মোস্তফা কামাল জানান, বৃহস্পতিবার এক চিঠিতে শুক্রবার থেকে সব পর্যটককেন্দ্র পরবর্তী ঘোষণা না দেওয়া পর্যন্ত বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে। করোনা পরিস্থিতি বিস্তার প্রতিরোধে এ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

এ ছাড়া দেশে করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলায় দ্বিতীয়বারের মতো বন্ধ ঘোষণা হলো শ্রীপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্ক। বন বিভাগের নির্দেশে ৩ এপ্রিল থেকে ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত এটি বন্ধ থাকবে।

শুক্রবার সন্ধ্যা সাতটায় এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন পার্কের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও সহকারী বন সংরক্ষক তবিবর রহমান। এর আগে পার্কটি ২০২০ সালের ২০ মার্চ থেকে ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত বন্ধ ছিল। করোনা পরিস্থিতিতে তখন এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। তিনি বলেন, বৈশ্বিক করোনা পরিস্থিতির দ্বিতীয় ঢেউয়ের প্রভাবে বাংলাদেশে প্রতিদিন সংক্রমিত ও মৃত্যুর সংখ্যা লাফিয়ে বাড়ছে। এই পরিস্থিতিতে সরকারের দেওয়া ১৮ দফা নির্দেশনা অনুযায়ী জনসমাগমকে নিরুৎসাহিত করা হয়েছে। পরিস্থিতি বিবেচনায় সারা দেশে বন বিভাগের অধীনে থাকা সব পর্যটন স্পট বন্ধের সিদ্ধান্ত নেয় বন বিভাগ। সে অনুযায়ী শ্রীপুরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কটিও বন্ধ থাকবে বলে নির্দেশনা এসেছে।

উল্লেখ্য, গত বছরের ১ নভেম্বর থেকে দুই মাস দুই দিন পার্কটি স্বাস্থ্যবিধি মেনে স্বাভাবিক কার্যক্রম চালিয়েছে। প্রতিদিন সারা দেশ থেকে প্রচুর পর্যটকের সমাগম ঘটেছিল পার্ক খোলা থাকার সময়ে।

এসবি/এআইআর


  • 3
    Shares