শ্রমিক সঙ্কটে বোরো ধান ক্ষেতেই ঝরে পড়ার আশঙ্কা

  • 1
    Share

সাহেব-বাজার ডেস্ক: পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় বিস্তীর্ণ মাঠজুড়ে এখন বোরো ধান। চারদিকে পাকা ধানের মৌ মৌ গন্ধে একাকার। বাতাসে দোল খাচ্ছে সোনালী ধানের শীষ। তবে মহামারী করোনার কারণে ধানকাটা শ্রমিকের সঙ্কট দেখা দিয়েছে। তাই স্বপ্নের কাঙ্খিত পাকা ধান প্রখর রোদে ক্ষেতেই ঝরে পড়ার আশঙ্কায় রয়েছে কৃষকরা।

তবে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা বলেছেন, এ উপজেলা পাঁচটি ধান কাটা মেশিন বরাদ্ধ পেয়েছি। সেসব স্থানে ধান কাটার শ্রমিক সঙ্কট দেখা দেবে, সেখানে ধানকাটা মেশিন দিয়ে কৃষকদের সহযোগীতা করা হবে।

কৃষক ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, এ বছর বোরো চাষের জন্য আবহাওয়া মোটেও অনুকূলে ছিল না। শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত কোনো বৃষ্টির দেখা মেলেলি। কৃষকদের পুরো মৌসুমজুড়ে পুকুর, খাল আর বিলের পানির ওপর নির্ভর করতে হয়েছে। এরপর প্রচণ্ড তাপদাহ।

এর ফলে কিছু কিছু জায়গার বোর ক্ষেতে চিটা হওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। এছাড়া ক্ষেতের ধান কাটার জন্য শ্রমিক না পাওয়ায় কৃষক পরিবারগুলো বেশ দুশ্চিন্তায় পাড়েছে।

কৃষক আমির হোসেন বলেন, জমিতে এ বছর বোর চাষ ভালোই হয়েছে। তবে প্রচণ্ড তাপদাহে খালের পানি শুকিয়ে যাওয়ায় বাড়ির পুকুর থেকে সেচ করে পানি দিতে হয়েছে। দুই-একদিনের মধ্যে ধান কাটা শুরু করতে হবে।

কৃষক মাহাতার মৃধা বলেন, এখন ক্ষেত ভার ধান। করোনর কারণে শ্রমিক পাচ্ছি না। যাদের পাচ্ছি তাদের বেশি মূল্য দিতে হচ্ছে।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. আবদুল মান্নান বলেন, গত বছরের চেয়ে এ বছর লক্ষ্যমাত্রা বেশি নির্ধারণ করা হয়েছে। এ উপজেলায় প্রায় ছয় হাজার কৃষক তিন হাজার ৩৪০ হেক্টর জমিতে বোরো চাষ করা করেছে।

এসবি/জেআর


  • 1
    Share