লড়াইটা হবে মেসি বনাম লেভানডভস্কিরও


সাহেব-বাজার ডেস্ক: ক্লাব ক্যারিয়ারে তাদের সাক্ষাৎ বহুবার হয়েছে। যেখানে কখনও লিওনেল মেসি হেরেছেন, কখনও রবার্ট লেভানডভস্কির। অবশ্য সেই পাল্লাটা লেভারই ভারী। বায়ার্ন মিউনিখের জার্সি গায়ে বার্সার আঙিনায় লেভার গোলের পর উদযাপন এখনও টাটকা। এখন তো তিনি নিজেই সেই আঙিনার খেলোয়াড়। মেসি চলে গেছেন পিএসজিতে। এর পর এখনও দু’জনার দেখা হয়নি। হয়তো সামনে হতেও পারে। তার আগে বিশ্বমঞ্চে দেখা হয়ে গেল।

পোলিশ স্ট্রাইকারকে বলা হয় ‘গোলমেশিন’। মনে করা হয় সর্বকালের অন্যতম সেরা স্ট্রাইকার। ক্লাব এবং দেশের হয়ে তিনি সিনিয়র ক্যারিয়ারে ৫০০-এর বেশি গোল করেছেন। জাতীয় দলেরও সর্বকালের সর্বোচ্চ গোলদাতা তিনি। ইউরোপে সবমিলিয়ে ছেলেদের আন্তর্জাতিক ফুটবলে সর্বোচ্চ গোলদাতাদের তালিকায় তৃতীয় স্থানে তিনি।

অন্যদিকে মেসি তর্কসাপেক্ষে সময়ের সেরা ফুটবলার। তাকে ডাকা হয় ফুটবল জাদুকর, আর্জেন্টাইন খুদেরাজসহ নানা নামে। সাতবার ব্যালন ডি’অর জিতেছেন, ছয়বার জিতেছেন ইউরোপিয়ান গোল্ডেন বুট। ২০২০ সালে ব্যালন ডি’অরের স্বপ্নের দলেও জায়গা করে নেন মেসি। ক্লাব এবং দেশের হয়ে এখন পর্যন্ত সিনিয়র ক্যারিয়ারে ৭৮৫ গোল করেছেন। একটি ক্লাবের হয়ে (বার্সেলোনা) সবচেয়ে বেশি গোলের রেকর্ড মেসির (৬৭২)। জাতীয় দলের হয়েও সবচেয়ে বেশি ম্যাচ এবং সবচেয়ে বেশি গোল করার রেকর্ড মেসির দখলে।

আজ স্টেডিয়াম ৯৭৪-এ দেশের জার্সিতে মুখোমুখি হবে দুই মহাতারকা। দু’জনই জয় চাইবেন। যদিও পোল্যান্ডের জন্য পথটা আর্জেন্টিনার চেয়ে সহজ। তারা টেনেটুনে ড্র করলেই গ্রুপ পর্ব পার। অন্যদিকে আর্জেন্টিনাকে জিততে হবে। মূলত জিতলে কোনো রকম হিসাব-নিকাশ ছাড়াই তারা শেষ ষোলো নিশ্চিত করবে।

তবে ড্র করলে সৌদি আরব-মেক্সিকো ম্যাচের ফলটা তাদের জন্য জরুরি হয়ে যাবে। সেখানে যদি সৌদি জিতে যায়, তাহলে আর আকাশি-সাদাদের রক্ষা নেই। তবে মেক্সিকো-সৌদি ম্যাচটি ড্র কিংবা মেক্সিকো জেতে, তাহলে শেষ ষোলোতে চলে যাবে দুইবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। এমন জটিল হিসাব মেলানোর চেয়ে পোলিশ-পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতেই চাইবেন লিওনেল স্কালোনির দল, যেখানে কাণ্ডারি হতে হবে মেসিকেই। অবশ্য দুঃসময়ে তিনি ভালোই ঝলক দেখাতে পারেন।

আর্জেন্টিনা-পোল্যান্ড দুই দলের জন্যই আজকের ম্যাচটি বাঁচা-মরার। যেখানে খেলা শেষে হাসবে একজন, সেই একজন হবে লিওনেল মেসি না হয় লেভানডভস্কির।

এসবি/জেআর