রাজশাহীতে ভাড়া বাড়েনি, সড়কে কমেছে বাস


নিজস্ব প্রতিবেদক:  জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির পর রাজশাহীতে বাসের ভাড়া বাড়েনি। তবে লোকসানের আশঙ্কায় অনেক মালিক বাস বন্ধ করে রেখেছেন। যেসব বাস চলছে সেগুলোতে এখনও আগের ভাড়াই নেওয়া হচ্ছে। মালিকেরা বাসের নতুন ভাড়া নির্ধারণের অপেক্ষা করছেন।

শুক্রবার রাতে সরকার জ্বালানি তেলের নতুন মূল্য নির্ধারণ করেছে। শুক্রবার রাত ১২টা থেকে নতুন দাম কার্যকর হয়েছে। এখন ডিজেল ও কেরোসিনের খুচরা মূল্য প্রতি লিটার ১১৪ টাকা, পেট্রল ১৩০ ও অকটেন ১৩৫ টাকা। লিটারে ৩৪ থেকে ৪৬ টাকা বেড়েছে তেলের দাম।

শনিবার সকালে রাজশাহী নগরীর শিরোইল বাস টার্মিনালে গিয়ে দেখা গেছে, অনেক বাস টার্মিনালের ভেতরে রাখা আছে। টার্মিনালের সামনে সড়কেও বাস রাখা হয়েছে। এসব বাস ছাড়া হচ্ছে না। তবে কিছু বাস এখনও এখান থেকে যাত্রী নিয়ে ছাড়ছে। লোকাল ও আন্তঃজেলা রুটের অনেক বাস না চললেও দূরপাল্লার বাসগুলো স্বাভাবিক চলছে।

রাজশাহী জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘তেলের দাম বৃদ্ধির কারণে অনেক বাস চলছে না। এখন অল্প কিছু বাস চলছে। তবে যেসব বাস চলছে সেগুলোতে অতিরিক্ত ভাড়া নেওয়া হচ্ছে না। মালিকপক্ষ কী করবে এখন তাদের ব্যাপার।’

রাজশাহী বাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মতিউল হক টিটো বলেন, ‘তেলের মূল্য অনেক বেড়েছে। আগের ভাড়া অনুযায়ী এখন গাড়ি চালালে লোকসান হবে। তাও কিছু বাস চলছে, কিছু বন্ধ রয়েছে। আমরা সমন্বয় করে নতুন ভাড়া নির্ধারণের অপেক্ষা করছি। নিজেরা তো ভাড়া বাড়াতে পারি না। এটা সরকার নির্ধারণ করে।’

তিনি আরও বলেন, ‘ছুটির দিনে রাতের বেলা ভাড়া বাড়ানো হয়েছে। আজও ছুটি। সে কারণে আমরা একটু অপেক্ষা করছি। ঢাকায় ভাড়া নির্ধারণ বিষয়ে মিটিং হবে। তারপরই হয়তো ভাড়া বাড়বে। ভাড়া বাড়িয়ে দিলে তেলের মূল্যবৃদ্ধির কোন প্রভাব পড়বে না।’

এসবি/আরআর/জেআর