যুক্তরাষ্ট্রে ‘বিদ্রোহ’ নিয়ে সদস্যদের সতর্ক করল শসস্ত্র বাহিনী


সাহেব-বাজার ডেস্ক : ‘বিদ্রোহ’ ও ‘দেশদ্রোহ’ নিয়ে সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের সতর্ক করলেন যুক্তরাষ্ট্রের ৩ বাহিনীর শীর্ষ কমান্ডাররা।

গত সপ্তাহে ওয়াশিংটনে ক্যাপিটল ভবনে হামলার সাথে বেশ ক’জন সাবেক এবং কর্মরত সেনা সদস্য জড়িত থাকার অভিযোগ উঠতে থাকায়, সেনা নেতৃত্ব স্পষ্টতই উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছে। পাশাপাশি ডেমোক্রেটদের কাছ থেকে পেন্টাগনের ওপর চাপও তৈরি হয়েছে।

ফলে ৬ জানুয়ারির নজিরবিহীন তাণ্ডবের এক সপ্তাহ পর মঙ্গলবার ওই ঘটনা নিয়ে স্থল, নৌ এবং বিমান বাহিনীসহ মার্কিন সেনাবাহিনীর সব শাখার শীর্ষ কম্যান্ডাররা যৌথভাবে সব সেনা সদস্যদের প্রতি একটি বার্তা পাঠিয়েছেন। খবর বিবিসির।

যৌথ বাহিনীর চেয়ারম্যান জেনারেল মার্ক মিলিসহ সাতজন শীর্ষ জেনারেল ও একজন অ্যাডমিরালের সই করা বিবৃতিটি সৈনিকদের উদ্দেশ্যে দেওয়া হলেও যুক্তরাষ্ট্রের মিডিয়া তা প্রকাশ করেছে।

বার্তায় কমান্ডাররা বলেছেন, ক্যাপিটল ভবনে হামলা ছিল যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেস ও সংবিধানের ওপর ‘সরাসরি হামলা’। এ অবস্থায় সেনাবাহিনী দেশের ‘সংবিধান রক্ষায় সবসময় প্রস্তুত’।

এতে আরও বলা হয়, ওয়াশিংটন ডিসিতে ৬ জানুয়ারির সহিংস দাঙ্গা যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেস, ক্যাপিটল ভবন এবং আমাদের সাংবিধানিক প্রক্রিয়ার ওপর সরাসরি হামলা। মত প্রকাশের স্বাধীনতা ও জমায়েতের অধিকার কাউকে সহিংসতা, দেশদ্রোহিতা ও বিদ্রোহের অধিকার দেয় না।

কমান্ডাররা সৈনিকদের বলেন, ২০ জানুয়ারি প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেবেন জো বাইডেন। তিনি সেনাবাহিনীর নতুন কম্যান্ডার-ইন-চিফ হবেন। সাংবিধানিক প্রক্রিয়ায় বাধা সৃষ্টির কোনো চেষ্টা আমাদের (সেনাবাহিনীর) মূল্যবোধ, রীতি ও শপথের খেলাপ এবং এটি বেআইনি।

এসবি/এআইআর