বিয়ের আগে অন্তঃসত্ত্বা দিয়া, জানালেন কারণ

  • 1
    Share

সাহেব-বাজার ডেস্ক: গত ১৫ ফেব্রুয়ারি মুম্বাইয়ের ব্যবসায়ী বৈভব রেখিকে বিয়ে করেন বলিউড অভিনেত্রী দিয়া মির্জা। দুজনেরই দ্বিতীয় বিয়ে এটি। বিয়ের পর সব কিছু গুছিয়ে মধুচন্দ্রিমায় মালদ্বীপে যান তারা। কিন্তু তার আগেই অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েন দিয়া। হানিমুনে গিয়ে বেবি বাম্পের ছবি পোস্ট করেন। এরপরই নেট দুনিয়ায় শুরু হয় আলোচনা।

বেবি বাম্পের ছবি পোস্ট করার পর অনেকেই বলেন, ‘বিয়ে করতে না করতেই বেবি বাম্প!’ প্রশ্ন রাখছেন ‘বিয়ে করার আসল কারণ তাহলে এটাই?’

দিয়াকে উদ্দেশ্য কেউ কেউ আবার লিখেন, ‘খুবই ভালো খবর, কিন্তু সমস্যাটা অন্য জায়গায়। নারী পুরোহিতের মন্ত্রে বিয়ে করে প্রচলিত রীতি ভেঙেছেন ঠিকই, কিন্তু বিয়ের আগে গর্ভবতী হওয়ার খবরটা দিলেন না কেন? তার মানে কি বিয়ের আগে গর্ভবতী হওয়াটা অন্যায়? কেন একজন নারী বিয়ের আগে সন্তানসম্ভবা হতে পারেন না?’

এমন প্রশ্নের উত্তরও দিয়েছেন দিয়া। তিনি বলেন, ‘খুবই মজার প্রশ্ন। প্রথমত, সন্তান আসছে জেনেই আমরা বিয়ে করেছি তা কিন্তু নয়। একসঙ্গে থাকব জন্যই বিয়ে করেছি। যখন বিয়ের পরিকল্পনা করছিলাম তখনই মা হওয়ার বিয়টি জানতে পারি। সুতরাং অন্তঃসত্ত্বা হয়েছি তাই বিয়ে করেছি তা নয়।’

এ অভিনেত্রী আরও বলেন, ‘আমরা যতক্ষণ পর্যন্ত এই বিষয়ে নিশ্চিত না হয়েছি ততক্ষণ ঘোষণা দেইনি। এটি আমার জীবনে অনেক খুশির সংবাদ। এর জন্য অনেক বছর অপেক্ষা করেছি। মেডিকেল সংশ্লিষ্ট কিছু বিষয় ছাড়া অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার খবরটি লুকানোর কোনো কারণ নেই।’

দিয়া মির্জা ২০০০ সালে মিস এশিয়া প্যাসিফিক ইন্টারন্যাশনাল হয়ে বলিউডে পা রাখেন। অভিনয় দিয়ে কাড়েন দর্শকের নজর। তবে জ্বলে উঠতে পারেননি যেভাবে প্রত্যাশা করা হয়েছিল। শুরুতে সাড়া ফেললেও সময়ের সঙ্গে সঙ্গে অনেকটাই ফ্যাকাশে হয়ে পড়েন তিনি। অভিনয়ে হয়ে পড়েন অনিয়মিত। ২০১৪ সালে ব্যবসায়িক অংশীদার সাহিল সংঘকে প্রথম বিয়ে করেন দিয়া। কিন্তু সে বিয়ে টেকেনি। পাঁচ বছরের মাথায় ২০১৯ সালের আগস্টে বিচ্ছেদ হয় তাদের।

এসবি/জেআর


  • 1
    Share