বাবার লাশ খাটিয়ায়, কাঁদতে কাঁদতে মৃত্যু কলেজেছাত্রীর


সাহেব-বাজার ডেস্ক: নেত্রকোনার বারহাট্টায় বাবা হারানোর শোকে কাঁদতে কাঁদতে অজ্ঞানের পর মারা গেলেন মেয়েও। বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলার সাহতা ইউনিয়নের নয়াপাড়া গ্রামে এমন মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে।

মৃতরা হলেন- উপজেলার নয়াপাড়া গ্রামের মো. চন্দন খান (৬০) ও তার মেয়ে মিতু সুলতানা (২০)।

মিতু নেত্রকোনা সরকারি মহিলা কলেজের সম্মান শ্রেণির ছাত্রী ছিলেন।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন বারহাট্টা উপজেলার সাহতা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান পল্টন সরকার।

স্থানীয়রা জানান, দীর্ঘদিন দূরারোগ্য রোগে ভুগছিলেন চন্দন খান। বৃহস্পতিবার সকালে তার মৃত্যু হয়। শোকে বসতঘরের একটি খাটে বসে কাঁদছিলেন মিতু ও তার অন্য দুই বোন। মিতুর কান্না কিছুতেই থামছিল না। দুপুর ২টার দিকে হঠাৎ জ্ঞান হারিয়ে খাট থেকে পড়ে যান মিতু।

পরে তাকে চিকিৎসার জন্য নেত্রকোনা সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

এসবি/জেআর