বাঘায় অসহায় বৃদ্ধকে অজ্ঞান করে ভ্যান নিয়ে গেল প্রতারক চক্র

  • 542
    Shares

বাঘা প্রতিনিধি : ভ্যান চালিয়ে প্রতিদিনের আয় দিয়ে ৪ সদস্যর সংসার চালাতেন ৬০ বছরের মুনতাজ আলী। কোন-কোন দিন সকালে না খেয়েও রোজগারের উদ্দেশে ভ্যান নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয়ে ফিরতেন দুপুর কিংবা রাতে।

শনিবার (১২ সেপ্টেম্বর) সকালে সেই নিয়মেই ভ্যান নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয়েছিলেন মুন্তাজ আলী। কিন্তু সেদিন আর চাল ডাল নিয়ে বাড়ি ফেরা হয়নি তার। দিনের এক সময়ে অজ্ঞান অবস্থায় অজ্ঞাত পরিচয়ে ভর্তি হয়ে রাত কাটাতে হয়েছে হাসপাতালের বিছানায়।

রোজগারের একমাত্র সম্বল ভ্যানটি ও মুঠোফোন নেওয়ার জন্য তাকে অজ্ঞান করে প্রতারক চক্রের সদস্য। অসুস্ততার অজুহাতে তার (মুন্তাজ) ঔষধ কেনার কথা বলে রেখে যায় বাঘা উপজেলার তুলশিপুর গ্রামের মসজিদের তাবলীগ জামায়াতের লোকদের কাছে। অবস্থা বেগতিক দেখে সংজ্ঞাহীন অবস্থায় অজ্ঞাত পরিচয়ে শনিবার সকাল সাড়ে ১১টায় ওই বৃদ্ধকে বাঘা উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন স্থানীয়রা।

তুলসীপুর গ্রামের মজিবর রহমান নামের একজন জানান, গতকাল শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় অজ্ঞাত ভ্যান চালক সংজ্ঞাহীন অবস্থায় তুলশিপুর গ্রামের মসজিদে অবস্থানরত তাবলীগ জামাতের লোকের জিম্মায় ওই বৃদ্ধকে রেখে চলে যায়। ঔষধ কিনতে যাওয়ার কথা বলে সে আর ফিরে আসেনি। পরে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করেন।

এদিন শনিবার সন্ধ্যার আগে জ্ঞান ফেরার পর ওই বৃদ্ধের পরিচয় জানা যায়। তার বাড়ি বাঘা উপজেলার পাকুড়িয়া ঘুনপাড়া। তার নাম মুন্তাজ আলী। সকালে ভ্যান নিয়ে বাড়ি থেকে বের হবার পর তাকে অজ্ঞান করে ভ্যান ও মোবাইল নিয়ে গেছে প্রতারক চক্র।

খবর পেয়ে সন্ধ্যার আগে হাসপাতালে ছুটে আসেন স্ত্রী ও ছেলে মেয়ে। স্ত্রী জায়েদা বেগম কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, সকালের খাবার ছিলনা। তাই না খেয়ে বাড়ি থেকে ভ্যান নিয়ে বের হয়েছিল। তার স্বামীর সম্বল বলতে আছে বাড়ি ভিটার ২কাঠা জমি আর প্রতিদিন রোজগারের ভ্যান। দুই ছেলে ও তিন মেয়ে তাদের। ৩ মেয়েকে বিয়ে দিয়েছেন। কিন্তু স্বামীর সংসারে বনিবনা না হওয়ায় ২ মেয়ে এখন তাদের কাঁধে। একমাত্র স্বামীর দিয়ে চলে তাদের ৪ সদস্যর সংসার। ছেলেরাও তেমন কাজ কর্ম করেনা। তাই কোন কোন সময় ছেলেদেরও খাওয়াতে হয়।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এই ঘটনার কয়েকদিন আগে আড়ানী পৌরসভার সাহাপুর এলাকায় উপজেলার ক্ষুদি ছয়ঘটি গ্রামের নাসির (৫৮) কে অজ্ঞান করে তার ভ্যানটি নিয়ে গেছে প্রতারক চক্র। বাঘা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নজরুল ইসলাম জানান, এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে ।

এসবি/এএইচ/জেআর


  • 542
    Shares