বাকি আছে জামায়াত


সাহেব-বাজার ডেস্ক : ২২ বছর আগে বিএনপির নেতৃত্বে যে চারটি দলের সমন্বয়ে জোটবদ্ধ রাজনীতির শুরু হয়েছিল—তা এখন সমাপ্তির পথে। জাতীয় পার্টি, ইসলামী ঐক্যজোট এবং সর্বশেষ খেলাফত মজলিসের প্রস্থানের মধ্য দিয়ে চারদলীয় জোটের প্রতিষ্ঠাকালীন প্রায় সব শরিকই খালেদা জিয়ার নেতৃত্বাধীন দলটির সঙ্গত্যাগ করলো। বাকি রইলো কেবল জামায়াতে ইসলামী। যদিও বিএনপির সঙ্গে একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধের বিরোধী এ দলটির সম্পর্কের ব্যাপারটি নানা অংকে আটকে রয়েছে।

বিএনপির স্থায়ী কমিটি ও দলটির গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বশীলদের সঙ্গে আলাপকালে জানা গেছে, জামায়াতের সঙ্গে বিএনপির আনুষ্ঠানিক জোট সম্পর্ক ধরে রাখতে খোদ বিএনপিতে কয়েকটি শক্তিশালী পক্ষ রয়েছে। একটি পক্ষ দলের নেতাদের মধ্যে সক্রিয়। দলের চেয়ারপারসনের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে যুক্ত একটি পক্ষ। বিএনপিপন্থী লেখক, বুদ্ধিজীবীদের একটি বড় অংশ এবং ২০ দলীয় জোটের একটি অংশের নেতারা কোনওভাবেই জামায়াতকে বিএনপির কাছ থেকে বিচ্ছিন্ন দেখতে আগ্রহী নয়। দায়িত্বশীলদের দাবি, যখনই জামায়াতকে ছাড়ার বিষয়ে আলোচনা আসে, তখনই এই পক্ষগুলো একসঙ্গে সক্রিয় হয়ে ওঠে। একদিকে জামায়াতও চায় না বিএনপিকে ত্যাগ করতে, অন্যদিকে দলের ভেতরে-বাইরে তাদের অনুসারীদের শক্ত বলয়।

দায়িত্বশীলরা জানাচ্ছেন, সুশীলদের মধ্যে যারা জামায়াত ত্যাগে অনীহা দেখায় বিএনপির শীর্ষ নেতৃত্বকে তারা যুক্তি দেখায়—জামায়াতকে ছেড়ে দিলে বিএনপি আরও চাপে পড়বে। একইসঙ্গে ভোটের দিক থেকেও পিছিয়ে পড়বে বিএনপি।

এসবি/এআইআর