বরফের নিচে মিলল ২৪ হাজার বছর আগের প্রাণী!


সাহেব-বাজার ডেস্ক : সাইবেরিয়ায় ২৪ হাজার বছর ধরে বরফের নিচের তাপমাত্রায় থাকার পরেও বিডেলয়েডস রটিফার নামের বহুকোষীয় একরকম আণুবীক্ষণ প্রাণী আবার জীবিত হল। সম্প্রতি এ সংক্রান্ত একটি গবেষণা প্রকাশিত হয়েছে ‘কারেন্ট বায়োলজি’ পত্রিকায়।

বিজ্ঞানীরা রাশিয়ান আর্কটিকের অ্যালায়েজা নদী থেকে বিডেলেওয়েড রটিফার নামের এই প্রাণীটিকে খুঁজে পেয়েছেন। সংগৃহীত প্রাণীটিকে যখনই পরীক্ষাগারে নিয়ে যাওয়া হয়, তখনই সেখানে সেটি সাড়া দেয়। স্তম্ভিত হন বিজ্ঞানীরা।

বিডেলেওয়েড রটিফারস হল বহুকোষীয় একরকম প্রাণী। খালি চোখে এদের দেখা যায় না। তবে তাদের বিশেষত্ব হল, কঠিন পরিস্থিতিতেও এরা দিব্য বেঁচে থাকতে পারে। শুষ্ক পরিবেশে, জমাট বরফে, অনাহারে এবং স্বল্পমাত্রার অক্সিজেনযুক্ত পরিবেশেও এরা বেঁচে থাকে। বরফঠান্ডাা সহ্য করা এক, আর সাইবেরিয়া অঞ্চলে ২৪ হাজার বছর ধরে কঠিন বরফস্তরের নীচে প্রায় জমাট বেঁধে থাকার পরেও প্রাণের স্পন্দন ধরে রাখা আর এক জিনিস।

প্রাণীটি জলযুক্ত পরিবেশে থাকে এবং এর রয়েছে বেঁচে থাকার এক অবিশ্বাস্য ক্ষমতা। রুশ বিজ্ঞানীরা সাইবেরিয়ার পরমাফ্রস্ট খনন করে উত্তোলিত হিমশীতল মাটিতে এই অনুজীবটি খুঁজে পান।

রাশিয়ার পুশচিনো সাইন্টিফিক সেন্টার এর বিজ্ঞানী ড: স্টাস মালাভিন বলেন, আমাদের প্রতিবেদনটি বিশ্বের সবচেয়ে শক্ত প্রতিবেদন, যা প্রমাণ করে যে বহুকোষী জীবরা ক্রিপ্টোবায়োসিস প্রক্রিয়ায় হাজার বছর বেঁচে থাকতে পারে।

এর আগে অবশ্য এককোষী প্রাণীর এরকম ম্যাজিক লাইফের কথা প্রকাশ্যে এসেছে। এ ছাড়া নিমোটোড গোত্রের কীটের এভাবে ৩০,০০০ বছর পরেও প্রাণের চিহ্ন প্রকাশের নজিরও অতীতে আছে। মস এবং কিছু কিছু বিশেষ প্রজাতির উদ্ভিদও এভাবে দীর্ঘকাল প্রতিকূলতার মধ্যেও নিজেদের বাঁচিয়ে রাখতে পারে বলে শোনা গিয়েছে।

কিন্তু বহুকোষী প্রাণীর ক্ষেত্রে এ ধরনের নজির এতদিন পাওয়া যায়নি। এবার এই তালিকায় বিজ্ঞানীরা বিডেলেওয়েড রটিফার-কেও জুড়ে দেবেন। এসব প্রাণীদের এমন কিছু ব্যবস্থা রয়েছে যা খুব কম তাপমাত্রায় তাদের কোষ এবং অঙ্গগুলি ক্ষতি থেকে রক্ষা করতে পারে।

এসবি/এআইআর