পানি কমছে তিস্তা ও জলঢাকায়


সাহেব-বাজার ডেস্ক : তিস্তায় আর নেই লাল সংকেত। মঙ্গলবার রাত থেকেই তিস্তার অসংরক্ষিত এলাকায় লাল সতর্কতা উঠিয়ে হলুদ সতর্কতা জারি করেছে জলপাইগুড়ি সেচ দপ্তর। একইসঙ্গে সংরক্ষিত এলাকায় জারি করা হলুদ সংকেত তুলে নেওয়া হয়েছে। এদিন সকালে তিস্তা ব্যারেজ থেকে নতুন করে পানি ছাড়া হয়নি।

অপরদিকে বুধবার সকালে সেচ দপ্তরের জুনিয়র ইঞ্জিনিয়ার মানবেশ রায় জানিয়েছেন, জলঢাকা নদীর অসংরক্ষিত এলাকায় হলুদ সংকেত জারি রয়েছে। তবে পানি কমেছে তিস্তা ও জলঢাকা নদীর।

পশ্চিমবঙ্গের সেচ দপ্তরের ইঞ্জিনিয়ার মানবেশ রায় বলেছেন, আজ এবং আগামীকাল ভারি বর্ষণের সতর্কতা থাকলেও নদীতে খুব বেশি পানি বাড়ার আশঙ্কা কম। ইতিমধ্যেই তিস্তা, জলঢাকা, তোর্সা করলা নদীর পানি বিপৎসীমার নিচ দিয়ে বইছে।

তবে বিহারে ভারি থেকে অতি ভারি বর্ষণের হলে পদ্মায় পানি বাড়ার আশঙ্কা আছে। আসামে এবং মেঘালয়ের পরিস্থিতি কিছুটা উন্নতির দিকে, তবে ত্রাণ নিয়ে চলছে হাহাকার।

তিনি আরও বলেন, প্রবল বন্যায় মৃত্যু হয়েছে প্রায় ৮৫ জনের। তবে পাহাড়ে একাধিক ধসের কারণে এখনো স্বাভাবিক হয়নি ভুটানের সঙ্গে সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা। রাস্তাতেই দাঁড়িয়ে রয়েছে শতশত পণ্যবাহী ট্রাক।

এসবি/এআইআর