পদ্মায় পানি শোধনাগার নির্মাণে আনুষ্ঠানিক চুক্তি সই

  • 165
    Shares

সাহেব-বাজার ডেস্ক: রাজশাহীতে পদ্মা নদীতে একটি ভূপরিস্থ পানি শোধনাগার নির্মাণে চীনা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে আনুষ্ঠানিক চুক্তি সই হয়েছে। রোববার (২১ মার্চ) সকালে রাজধানীর একটি পাঁচতারকা হোটেলে এই চু্ক্তি সম্পন্ন হয়। এর মাধ্যমে বাংলাদেশ সরকার ও চীনের এক্সিম ব্যাংকের যৌথ অর্থায়নে রাজশাহী ওয়াসার এই প্রকল্পটি হুনান কন্সট্রাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং গ্রুপ কোম্পানি লিমিটেড ২ হাজার ৭২১ কোটি ৮৭ লাখ ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে সম্পন্ন করার কার্যাদেশ পেলো।

চুক্তি সইয়ের আনুষ্ঠানিকতায় উপস্থিত ছিলেন- স্থানীয় সরকার মন্ত্রী তাজুল ইসলাম, রাজশাহী সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন, রাজশাহী-২ আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা ও স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ।

ভূ-গর্ভস্থ পানির ওপর চাপ কমাতে রাজশাহী ওয়াসার অধীনে ‘রাজশাহী ওয়াসা ভূ’-উপরিস্থিত পানি শোধনাগার’ নামের প্রকল্পটি অনেক দিন ধরেই আলোচনায়। এর আগে গোদাগাড়ীতে এর স্থানও নির্ধারিত হয়।

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা যায়, ইনটেক পয়েন্ট, বুস্টার পাম্পিং স্টেশনসহ প্রতিদিন ২০ কোটি লিটার ক্ষমতাসম্পন্ন হবে শোধনাগার শোধনাগারটি। চীনা সরকারের সঙ্গে জিটুজি প্রকল্পটি প্রথম জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় অনুমোদন হয় ২০১৮ সালে। সে বছরের ২৪ অক্টোবর চীন সরকার মনোনীত সেদেশের প্রতিষ্ঠান হুনান কন্সট্রাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং গ্রুপ করপোরেশনের (এইচসিইজি) ৩২৫ মিলিয়ন ইউএস ডলারের ক্রয় প্রস্তাব সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে অনুমোদিত হয়। এর আগে এই প্রকল্প জরুরি ভিত্তিতে বাস্তবায়নের জন্য ‘জনস্বার্থে’ সরাসরি ক্রয় পদ্ধতি (ডিপিএম) অনুসরণ করার সিদ্ধান্ত নেয় মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে অনুষ্ঠিত অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি।

মাঝখানের সময়টায় প্রকল্পের নতুন অগ্রগতি ছিলো না। এ বছরের ১৩ জানুয়ারি অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) এক পত্রে জানানো হয়, ঢাকাস্থ চীনা দূতাবাস জানিয়েছে, মনোনীত চীনা ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান হুনান কন্সট্রাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং গ্রুপ করপোরেশন (এইচসিইজি) পুনর্গঠিত হয়েছে। এর নতুন নাম ‘হুনান কন্সট্রাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং গ্রুপ কোম্পানি লিমিটেড’। সে অনুযায়ী প্রিফারেন্সিয়াল বায়ার ক্রেডিটের (পিবিসি) নতুন নিয়মে প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে পুনরায় বাণিজ্যিক চুক্তি সম্পাদনের জন্য ওইদিনই নেগোসিয়েশন সভা অনুষ্ঠিত হয়। এই ষোড়শ নেগোসিয়েশন সভায় বাণিজ্যিক চুক্তির সব নথিপত্র অপরিবর্তিত রেখে পুনর্গঠিত ‘হুনান কন্সট্রাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং গ্রুপ কোম্পানি লিমিটেড’কে মনোনীত করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

গত ৩ ফেব্রুয়ারি ‘হুনান কন্সট্রাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং গ্রুপ কোম্পানি লিমিটেড’-এর সঙ্গে ইঞ্জিনিয়ারিং প্রকিউরমেন্ট অ্যান্ড কন্সট্রাকশন/টার্কি-এর ভিত্তিতে নেগোসিয়েশনের মাধ্যমে চূড়ান্তকৃত ৩২৫ মিলিয়ন ইউএস ডলার সমতুল্য বাংলাদেশি মুদ্রায় ২৭২ কোটি ১৮ লাখ ৭৫ টাকার (উৎস ভ্যাট ও আয়কর ছাড়া) ক্রয় প্রস্তাব সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির ৫ম সভায় পুনঃঅনুমোদন দেয়া হয়।

সম্প্রতি চীনা প্রতিষ্ঠানটির একটি প্রতিনিধি দল রাজশাহী ঘুরে যান। চুক্তি সই করার পর শিগগির প্রকল্পের কাজ শুরুর ব্যাপারে তারা আশাবাদী।

এসবি/জেআর


  • 165
    Shares