নারীদের পোশাকে পকেট থাকে না কেন?


সাহেব-বাজার ডেস্ক : নারীদের পোশাকে প্রায় সময়েই কোনো পকেট থাকে না বললেই চলে। কিন্তু কেন এ রকম হয়, তা কি জানেন? এই নিয়ে অবশ্য অনেক মেয়েই আফসোস করেন। তাদের প্রায়ই বলতে শোনা যায়, কেন আমাদের জামায়, প্যান্টে পকেট নেই? যদিও তার উত্তর দেওয়া সম্ভব নয়। আবার এ বিষয়টিও এখনো স্পষ্ট নয় যে, কেন মেয়েদের ড্রেসে পকেট থাকে না?

কিন্তু আপনি চাইলে আপনার জামায় পকেট লাগিয়ে নিতেই পারেন। এখন যদিও অনেক ব্র্যান্ডই মেয়েদের আউটফিটেও পকেট দেওয়া শুরু করেছেন। আর তা দেখে খুশি নারীরা।

কেন মেয়েদের জামায় কোনো পকেট থাকে না? চলুন এবার জেনে নেওয়া যাক-

বৈজ্ঞানিক কারণ
ঠিক কী কারণে মেয়েদের পোশাকে পকেট থাকে না? এর পেছনে নানা কারণ সন্ধান করে থাকেন অনেকেই। আসলে এর পেছনে কোনো বৈজ্ঞানিক কারণ নেই। পুরোনো মানসিকতাই এর সঙ্গে জড়িয়ে আছে। প্রাচীন সময়ে যেহেতু পকেট রাখা হত না, সেই সময় থেকেই একই বিষয় চলে আসছে।

যদিও বর্তমানে মেয়েরা এর প্রতিবাদ করেছেন। তারা পোশাকে পকেট রাখার দাবিও জানিয়েছেন। এখন নারীরা নিজেদের পছন্দমতো পোশাকে পকেট যোগ করেন। সে রকম ধরনের পোশাক পরেন, যা তাদের নিজের পছন্দ।

সৌন্দর্য নষ্ট হবে
টি-শার্টে পকেট থাকুক, এ রকম দাবি কেউ জানাচ্ছেন না। কিন্তু ড্রেসে, স্কার্টে, কুর্তায় বা ট্রাউজারে তো পকেট থাকতেই পারে। প্রাচীন সময়ে যখন নারীদের শার্ট বা টপ ডিজাইন করা হত, তখন সেই শার্টে বা টপে কোনো পকেট যোগ করা হত না।

তখন মনে করা হতো, যদি মেয়েদের জামায় পকেট থাকে, তাহলে সেই পকেটে তারা কিছু না কিছু রাখবেনই। আর এই কারণে তাদের ‘সৌন্দর্য’ খারাপ হয়ে যাবে। এমনটাই মনে করতেন সেই সময়ের ডিজাইনাররা। সেই জন্য পোশাকে পকেট দেওয়া হত না। আর নারীরাও সেই ধরনের পোশাক পরতেই স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করতেন।

সময়ের পালাবদল
গত শতাব্দীতেও সব মেয়ে চাকরিজীবী ছিলেন না। তাদের নিজেদের টাকা বহন করার কোনো অধিকার ছিল না। তারা সব সময়ই বাড়ির পুরুষ সদস্যের উপর নির্ভরশীল ছিলেন। তাই তাদের পোশাকে পকেট রাখারও প্রয়োজন ছিল না। কারণ তাদের পকেটে টাকা রাখার কোনো প্রয়োজন ছিল না।

এরপর মেয়েরা হাতব্যাগ বা হ্যান্ডব্যাগ কিংবা পার্স ব্যবহার করতে শুরু করেন। তাতেই নিজেদের সামগ্রী রাখা শুরু করেন। তাই পোশাকে পকেট ফিরিয়ে আনার বা দেওয়ার কোনো প্রয়োজন পড়েনি। কিন্তু এখন নারীরা নিজেদের পছন্দমতো পোশাক পরেন। সেখানে তারা পকেট রাখতেও পারেন আবার নাও পারেন, এটা একান্তই তাদের নিজের পছন্দ।

 

এসবি/এমই