ধর্ষণ মামলায় কারাগারে পুঠিয়া পৌর মেয়র


নিজস্ব প্রতিবেদক: চাকরীর প্রলোভনে তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগে পুঠিয়ার পৌর মেয়র ও উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক আল মামুন খানকে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজশাহী জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করা হলে বিচারক আবু তালেব তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

এর আগে বুধবার (৮ সেপ্টেম্বর) ভোরে বরগুনা জেলার পৌর এলাকার এক ভাড়া করা বাসা থেকে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে।

আগামী রোববার তার আইনজীবীর করা জামিন আবেদন এবং পুলিশের করা ৫ দিনের রিমান্ড আবেদনের শুনানির জন্য দিন ধার্য করেছেন বিচারক।

পুঠিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সোহরাওয়ার্দী হোসেন জানিয়েছেন, মামলার তদন্তের স্বার্থে পৌর মেয়রকে জিজ্ঞাসাবাদের প্রয়োজন। এ জন্য আদলতে পাঁচদিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়েছে।

তরুণী ধর্ষণ মামলার এজাহার বলা হয়, চাকরীর জন্য পুঠিয়া পৌর মেয়র আল মামুনের সাথে দেখা করেন তিনি। অনৈতিক প্রস্তাব দিলে তিনি রাজি হননি। এরপর একদিন মেয়র তাকে বাড়িতে ডাকেন। বাড়িতেই ধর্ষণের শিকার হন। এরপর বিয়ের প্রলোভন দিয়ে বিভিন্ন যায়গায় তাকে নিয়ে ধর্ষণ করেন। বিয়েতে অস্বীকার করাতে ওই তরুণী বাধ্য হয়ে মামলা করেন।

এসবি/এমই/এআইআর