তীব্র তাপদাহের পর ঝড়-বৃষ্টির সম্ভাবনা

  • 1
    Share

সাহেব-বাজার ডেস্ক : রাজধানী ঢাকাসহ দেশের অধিকাংশ জেলায় চলছে তীব্র তাপদাহ। ফলে গরমে হাঁসফাঁস অবস্থা খেটে খাওয়া সাধারণ মানুষের। আবহাওয়া অফিসের তথ্যমতে, এমন তাপদাহ থাকবে আরও দুই থেকে তিন দিন। এরপর চলতি মাসের শেষের দিকে নামতে পারে বৃষ্টি। সেই সঙ্গে এপ্রিল মাসে হতে পারে কালবৈশাখী ঝড়।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, বুধবার দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে ৩৯ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা চলতি বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ। গতকাল মঙ্গলবার এই তাপমাত্রা ছিল ৩৯ দশমিক ১।

বিভাগীয় শহরগুলোর মধ্যে ঢাকায় আজ সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৭ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস, ময়মনসিংহে ৩৪ দশমিক ৫, চট্টগ্রামে ৩৮ দশমিক ৭, সিলেটে ৩৬ দশমিক ৪, রাজশাহীতে ৩৬ দশমিক ৮, রংপুরে ৩৪ দশমিক ৩, খুলনায় ৩৭ দশমিক ২ এবং বরিশালে ৩৬ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে।

আবহাওয়া অফিস সূত্রে জানা যায়, ঢাকা, চট্টগ্রাম, সিলেট, খুলনা, বরিশাল বিভাগসহ রাজশাহী, টাঙ্গাইল, গোপালগঞ্জ ও পাবনা অঞ্চলের ওপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। এই তাপপ্রবাহ আরও দুই থেকে তিন দিন পর্যন্ত স্থায়ী হবে।

আবহাওয়াবিদ মোহাম্মদ আফতাব উদ্দিন বলেন, ‘এই তাপমাত্রা থাকবে আরও কয়েকদিন। এরপর ২৮-২৯ মার্চ ঝড়বৃষ্টি হতে পারে। এ সময় কমে আসবে তাপমাত্রা।’

দাপটের সঙ্গে তাপদাহ চললেও বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা আছে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘চলতি মাসের শেষ সপ্তাহ অর্থাৎ ২৮, ২৯, ৩০ মার্চ ঝড়-বৃষ্টির সম্ভাবনা আছে।’

এদিকে আবহাওয়ার দীর্ঘমেয়াদী পূর্বাভাসে বলা হয়, চলতি মাসে স্বাভাবিক বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা আছে। এক থেকে দুটি নিম্নচাপ হতে পারে। এরমধ্যে একটি ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে। এপ্রিল মাসে উত্তর থেকে মধ্যাঞ্চলে দুই থেকে তিন দিন বজ্র ও শিলাবৃষ্টিসহ মাঝারি ধরনের বা তীব্র কালবৈশাখী ঝড় এবং দেশের অন্য এলাকায় চার থেকে পাঁচ দিন বজ্র ও শিলাবৃষ্টিসহ হালকা বা মাঝারি ধরনের কালবৈশাখী ঝড় হতে পারে।

এসবি/এআইআর


  • 1
    Share