করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি কোথায় কেমন!


সাহেব-বাজার ডেস্ক : জীবনের তাগিদে, করোনার ভয় কাটিয়ে বাইরে বের হতে হচ্ছে। যেতে হচ্ছে কত জায়গায়, উঠতে হচ্ছে কত গাড়িতে। ঘরে বা বাইরে, অফিসে বা রাস্তায় কোথায় করোনার সংক্রমণের ঝুঁকি কেমন, তা আমরা অনেকেই জানি না।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, জিনিসপত্রের মাধ্যমে এই ভাইরাসের যত না সংক্রমণ হয়, তার চেয়ে অনেক বেশি ছড়ায় মানুষ থেকে মানুষে।

আমেরিকার ‘সেন্টার্স ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন’ (সিডিসি)-র এক গবেষণায় উঠে এসেছে, করোনা ভাইরাস কোন ক্ষেত্রে কতটা ছড়ায়, কোথায় ঝুঁকি বেশি? বলা হয়েছে, কোভিড-১৯ ছড়িয়ে পড়ার ধরণ বদল হয়নি। আজও তা মানুষে-মানুষে সংস্পর্শ থেকেই বেশি করে ছড়ায়। কিন্তু সেই সংস্পর্শেরও নানা প্রকারভেদ রয়েছে। হাতে হাত লাগায় যেমন করে ছড়াবে, হাঁচি বা কাশি থেকে ছড়াবে তার অনেক গুণ বেশি।

ভাইরাস বিশেষজ্ঞ ভিনসেন্ট মানস্টেরের মতে, ‘সমীক্ষায় দেখা গেছে, একজন সংক্রমিত ব্যক্তির সরাসরি সংস্পর্শে আসা অনেক বেশি ঝুঁকির’।

এজন্য নিরাপদে থাকতে অন্যের থেকে দূরত্ব রাখতেই হবে। এছাড়া বারবার হাত ধোয়া ও মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক। আক্রান্ত ব্যক্তির সরাসরি হাঁচি-কাশির ড্রপলেট থেকে এই ভাইরাস সবচেয়ে বেশি ছড়ায়। শ্বাসের কাছাকাছি থাকলেই যে কেউ আক্রান্ত হতে পারেন কোভিড-১৯-এ। কিন্তু মাস্ক পরলে সে সম্ভাবনা কমে যায় প্রায় ৬০-৭০ শতাংশ।

বিশেষজ্ঞরা বলেন, মাস্ক পরে দু’জন কাছাকাছি দাঁড়িয়ে সর্বাধিক চার মিনিট পর্যন্ত কথা বললেও সংক্রামিত হওয়ার ভয় নেই। আলো-হাওয়া খেলে এমন জায়গায় দু’জনের মধ্যে ৬ ফুট দূরত্বে থাকলে তেমন কোনো শঙ্কার কারণ নেই। আবার পাশ দিয়ে সাইকেল চালিয়ে বা হেঁটে বা জগিং করে আক্রান্ত ব্যক্তি গেলে, যদি তিনি হঁাচি বা কাশি না দেন, তা হলেও ভয়ের কারণ নেই। তবে মুখে মাস্ক পরেই থাকতে হবে।

রাস্তা, অফিস, পাবলিক বাস বা টয়লেট থেকে সংক্রমণ ছড়ানোর ঝুঁকি বেশি। ঘরোয়া আয়োজনেও আত্মীয় বন্ধু ডেকে জমায়েত করার সময় আসেনি এখনো।

মনে রাখতে হবে, গত ঈদের পর থেকেই কিন্তু দেশে করোনা ভাইরাসে সংক্রমণে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে শুরু করেছে।

এসবি/এআইআর