করোনায় আক্রান্ত গণমাধ্যমকর্মীর সংখ্যা ৭৫০ ছাড়ালো

  • 2
    Shares

সাহেব-বাজার ডেস্ক : করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত গণমাধ্যমকর্মীর সংখ্যা সাড়ে সাতশ’ ছাড়িয়েছে। একই সঙ্গে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ১৭ জন এবং উপসর্গ নিয়ে ১০ জন সাংবাদিকের মৃত্যু হয়েছে।

তবে আক্রান্তদের মধ্যে ৫২৫ জন সুস্থ হয়েছেন।

শনিবার (২২ আগস্ট) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ভিত্তিক স্বেচ্ছাসেবী গ্রুপ ‘আমাদের গণমাধ্যম, আমাদের অধিকার’ সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

গত সাড়ে চার মাসে করোনা ভাইরাসে শনাক্ত হয়েছেন ১৭৫টি প্রতিষ্ঠানের ৭৭৮ জন গণমাধ্যমকর্মী। এর মধ্যে ১০৭টি সংবাদপত্র, ৩১টি টেলিভিশন চ্যানেল, ৩০টি অনলাইন নিউজ পোর্টাল, ৫টি রেডিও এবং ২টি বার্তা সংস্থার সংবাদকর্মী রয়েছেন।

গত ৩ এপ্রিল ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশনের একজন সংবাদকর্মী প্রথম করোনায় শনাক্ত হলেও সাড়ে চার মাসে এ সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৭৭৮। এ পর্যন্ত ৫২৫ জন সুস্থ হয়ে ফিরলেও ১৭ জন সাংবাদিকের মৃত্যু হয়েছে। তাছাড়া, উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন ১০ জন। আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে থাকায় গণমাধ্যমে আতংক বিরাজ করছে।

এদিকে, ৭৭৮ জন সংবাদকর্মী আক্রান্ত হওয়ায় সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের কর্তৃপক্ষ আরও প্রায় তিন শতাধিক সাংবাদিক-কর্মচারীকে সেলফ আইসোলেশনে পাঠায়।

অন্যদিকে, সংবাদকর্মীদের শারীরিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে কাজ করার পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসকরা। তারা বলেন, এ মুহূর্তে চিকিৎসক, পুলিশ, সাংবাদিক এবং জরুরি প্রয়োজনে কর্মরত সবাইকে শারীরিক দূরত্ব নিশ্চিত করে দায়িত্ব পালন করতে হবে।

এ ব্যাপারে জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ডা. শাহেদ ইমরান বলেন, ‘করোনা ভাইরাস নিয়ে আমাদের বসবাস করতে হবে। দীর্ঘদিন ধরে বিশ্বব্যাপী স্বাস্থ্য ব্যবস্থা নাজুক অবস্থায় ছিল। করোনার কারণে অনেকটাই পরিবর্তন হয়েছে। সংক্রমণের ঝুঁকি সবক্ষেত্রেই রয়েছে। তবে শারীরিক দূরত্ব যেখানে নেই, সেখানে ঝুঁকিটা বেশি। কোভিড-১৯ এর প্রধান চিকিৎসাই হচ্ছে সচেতনতা। এছাড়া আপাতত এর কোনো ট্রিটমেন্ট নেই। তাই সবাইকে মাস্ক ব্যবহার এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। ’

তিনি বলেন, ‘যারা সম্মুখযোদ্ধা তাদের জন্য নির্দিষ্ট মন্ত্রণালয় ও সরকারকে বিশেষ গুরুত্ব দিতে হবে। এসময় যারা মারা গেছেন তাদের পরিবারকে সার্বিক সহায়তার বিষয়টিতে সরকারকে গুরুত্ব দিতে হবে। তাহলে সম্মুখযোদ্ধাদের মানসিক শক্তি বাড়বে। ’

দেশে একের পর এক সাংবাদিক করোনায় আক্রান্ত হওয়ায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে বিভিন্ন সাংবাদিক সংগঠন।

এ ব্যাপারে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) সাধারণ সম্পাদক রিয়াজ চৌধুরী বলেন, ‘প্রতিনিয়ত গণমাধ্যমে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে, যা উদ্বেগের বিষয়। সংবাদকর্মীরা সম্মুখে কাজ করেন। এজন্য তাদের ঝুঁকি বেশি। এক্ষেত্রে আমাদের সবাইকে সচেতন হতে হবে। ঝুঁকি এড়িয়ে কাজ করতে হবে। ’

তিনি বলেন, ‘ইতোমধ্যে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি প্রায় ১২শ’ সাংবাদিক ও তাদের পরিবারের সদস্যদের করোনা পরীক্ষার ব্যবস্থা করেছে। সপ্তাহের বুধ ও শনিবার এখানে পরীক্ষার ব্যবস্থা রয়েছে। আমাদের সদস্য ও তাদের পরিবারের সুরক্ষার কথা চিন্তা করেই এমনটি করা হয়েছে। ’

এসময় কেউ আক্রান্ত হলে গণমাধ্যমের মালিকরা তাদের পরিবারের পাশে দাঁড়াবেন এবং তাদের মানসিক শক্তি যোগাবেন বলেও আশা প্রকাশ করেন তিনি।

এসবি/এআইআর


  • 2
    Shares