কঠোর লকডাউনে ফাঁকা রাজশাহীর রাস্তাঘাট

  • 33
    Shares

নিজস্ব প্রতিবেদক: করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে চলছে কঠোর বিধিনিষেধ। এতে রাজশাহী নগরজুড়ে টহলে রয়েছে সেনাবাহিনী ও বিজিবি। এছাড়াও লকডাউন বাস্তবায়নে তৎপর থাকতে দেখা গেছে অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীগুলোকেও। সবমিলিয়ে কঠোর বিধিনিষেধের দ্বিতীয় দিনে অনেকটাই ফাঁকা দেখা গেছে রাজশাহীর রাস্তাঘাট।

শনিবার (২৪ জুলাই) সকাল থেকে নগরীর গুরুত্বপূর্ণ রাস্তাঘাটগুলোতে হাতেগোনা দুয়েকটি রিকশা, মোটরসাইকেল এবং প্রাইভেট কার ছাড়া চোখে পড়েনি সাধারণ মানুষের চলাচল। তবে মাঝে মাঝেই দেখা মিলেছে অ্যাম্বুলেন্সসহ জরুরি সেবাদানকারী কিছু পরিবহনের।

এছাড়া নগরীর বিভিন্ন স্থানে কাঁচাবাজার ও মুদি দোকান খোলা দেখা গেছে। তবে বন্ধ ছিল নগরীর বিভিন্ন মার্কেটের দোকানপাট। এছাড়া বন্ধ রয়েছে দূরপাল্লার গণপরিবহনগুলো।

নগরীর কামরুজ্জামান রেলগেট চত্বরে কাটাখালীর বাসিন্দা কাজেম আলী জানান, ‘রোগী নিয়ে রাজশাহী মেডিকেলে এসেছিলাম ডাক্তার দেখাতে। অনেক কষ্টে বাড়ি থেকে অটোরিকশায় করে মেডিকেলে এসেছিলাম। ডাক্তার দেখাতে দেরি হওয়ায় অটোরিকশা অন্য যাত্রী নিয়ে চলে গেছে। ডাক্তার দেখিয়ে একটি রিকশা নিয়ে এখানে এসেছি। কিন্তু তিন ঘণ্টা অপেক্ষাও পরও কোনো যানবাহন পাচ্ছি না। এখন যাব কিভাবে, সেই চিন্তায় আছি।’

নওহাটার বাসিন্দা পল্লব কুমার সাহা বলেন, ‘বাড়ি থেকে না বের হলে বুঝতাম না কত কঠোর লকডাউন চলছে। সকালে আসার পথে অনেকবার জিজ্ঞাসাবাদ করেছে আইনশৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা। আবার বাজারে এসে দাঁড়ানোতেও জিজ্ঞাসা করেছেন অনেকেই। তবে সবচেয়ে বেশি বিপাকে পড়েছি যোগাযোগ ব্যবস্থা নিয়ে। বাড়ি ফেরার জন্য তেমন কোনো যানবাহন মিলছে না। পুরো শহর একেবারেই ফাঁকা, আসার সময়ও একই চিত্র ছিল।’

এদিকে নগরীর প্রবেশ পথের চেকপোস্টগুলোতে বাইরে থেকে আসা প্রত্যেককেই পুলিশের জেরার মুখে পড়তে হচ্ছে। জরুরি প্রয়োজন প্রমাণে ব্যর্থ হলে ফিরিয়ে দেয়া হচ্ছে। এছাড়া যারা জরুরি প্রয়োজনে বের হচ্ছেন তাদের দ্রুত কাজ শেষ করে ঘরে ফেরার নির্দেশনা দিচ্ছেন তারা।

কঠোর লকডাউনের বিষয়ে নগর পুলিশের মুখপাত্র গোলাম রুহুল কুদ্দুস বলেন, ‘আগের মতই নগরীর প্রবেশ পথে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কোনো পরিবহন প্রবেশ করতে পারছে না। বিনা প্রয়োজনে কাউকে বাইরে যেতে দেয়া হচ্ছে না। সরকারি নির্দেশনা পালনে আরএমপি শক্ত অবস্থানে রয়েছে।’

কঠোর লকডাউনের বিষয়ে রাজশাহী জেলা প্রশাসক মো. আব্দুল জলিল বলেন, ‘সরকার ঘোষিত কঠোর লকডাউন বাস্তবায়নে রাজশাহী জেলা প্রশাসন প্রথম থেকেই সর্তক অবস্থানে রয়েছে। আইনশৃংখলা বাহিনীর সঙ্গে যৌথভাবে জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ টিম কাজ করে যাচ্ছে। একই সাথে জনগণকে সচেতন করতে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে মাইকিং ও মাস্ক বিতরণও করা হচ্ছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘করোনাভাইরাস প্রতিরোধে জেলা প্রশাসন মাঠে থেকে কঠোর পরিশ্রম করে যাচ্ছে। কিন্তু যারা আইন অমান্য করে বাইরে বের হচ্ছেন এবং বাইরে বের হওয়ার সঠিক কারণ দেখাতে পারছেন না তাদের বিরুদ্ধে আমরাও কঠোর ব্যবস্থা নিচ্ছি।’ জাগো নিউজ।

এসবি/জেআর


  • 33
    Shares