ওমিক্রন থেকে বাঁচতে যে নিয়ম মেনে চলবেন


 

সাহেব-বাজার ডেস্ক : করোনাভাইরাসের নতুন প্রজাতি ওমিক্রন বিশ্বের কাছে ত্রাস হয়ে গিয়েছে। সর্বশেষ এই ভ্যারিয়েন্টটি কোভিড জীবাণুর সবচেয়ে বেশি মিউটেট হওয়া সংস্করণ। এর মিউটেশনের তালিকা এত দীর্ঘ যে একজন বিজ্ঞানী একে ‘ভয়াবহ’ বলে বর্ণনা করেছেন। অন্য একজন বিজ্ঞানী বলেছেন, তার দেখা অন্য ভ্যারিয়েন্টগুলোর মধ্যে ওমিক্রনই সবচেয়ে মারাত্মক। দক্ষিণ আফ্রিকায় প্রথম এই প্রজাতির খোঁজ পাওয়া যায়।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে এ পর্যন্ত বিশ্বে প্রায় ২৪টি দেশে অমিক্রন শনাক্ত হয়েছে। চলতি সপ্তাহেই নতুন এই ধরন শনাক্ত হয়েছে আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়া, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া, বতসোয়ানা, বেলজিয়াম, হংকং, ব্রিটেন, কানাডা, হংকং, ইসরায়েল ও ভারতে। তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এখনই সতর্ক হওয়া প্রয়োজন।

নতুন ভ্যারিয়েন্টটি মৃদু রোগের উপসর্গের সঙ্গে সঙ্গে মাংসপেশীর ব্যথা এবং এক অথবা দুইদিন পর্যন্ত ক্লান্তির বোধ তৈরি করতে পারে। আমরা এখন পর্যন্ত যাদের শরীরে এই ধরনটি শনাক্ত করেছি, তাদের স্বাদ বা গন্ধ চলে যায়নি। তবে তাদের হালকা কাশি হতে পারে।

করোনার নয়া প্রজাতি ওমিক্রন থেকে বাঁচতে কী করবেন? খাদ্য তালিকাতেই বা কী পরিবর্তন করবেন? বিশেষজ্ঞরা বলছেন, করোনার নয়া প্রজাতি থেকে বাঁচতে খাদ্য তালিকায় ফল, শাক-সবজি, বাদাম এবং বীজ জাতীয় খাবার রাখুন। কারণ এদের মধ্যে রয়েছে অ্য়ান্টি্ক্সিডেন্ট। যা শরীরের পক্ষে ভালো।

শীতকালে অনেকে পানি খাওয়া কমিয়ে দেন। বিশেষজ্ঞদের মতে, কোনও ভাবেই ডিহাইড্রেশন হতে দেওয়া যাবে না। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার উপর এর সরাসরি প্রভাব পড়ে।

ওমিক্রন সংক্রমণ থেকে রক্ষা পেতে আপনাকে এই সময়ে আপনার মানসিক শান্তি বজায় রাখতে হবে। মানসিক চাপ কোন ভাবেই নেওয়া যাবে না। অবসাদ গ্রস্থ হওয়া যাবে না কোন কারণেই। কোন কারণে স্ট্রেস নেওয়া যাবে না। যথাযথ পরিমাণে ঘুম প্রয়োজন। পর্যাপ্ত পরিমাণে ঘুম না হলে এই রোগের জন্য খারাপ। ঠিক সময়ে ডাক্তারের থেকে পরামর্শ নিন।

 

এসবি/এমই