ওমিক্রন: জনসচেতনতা বাড়াতে ফের মাঠে জামিল ব্রিগেড


নিজস্ব প্রতিবেদক: করোনার দক্ষিণ আফ্রিকান ভ্যারিয়েন্ট ‘ওমিক্রন’ সংক্রমণ নিয়ে ইতিমধ্যেই উদ্বীগ্ন পুরো বিশ্ব। করোনার নতুন এই ভ্যারিয়েন্ট ঠেকাতে অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও নেয়া হচ্ছে বিভিন্ন আগাম প্রস্তুতি। এমন পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষকে সচেতন এবং স্বাস্থ্যবিধি মানার বিষয়ে উদ্বুদ্ধ করতে আবারও মাঠে নেমেছে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন শহিদ জামিল ব্রিগেড।

বৃহস্পতিবার বেলা ১২টায় রাজশাহীর সাহেব বাজার জিরোপয়েন্টে সাধারণ মানুষের মাছে প্রায় এক হাজার মাস্ক বিতরণ করেন ব্রিগেডের সদস্যরা। এসময় স্বাস্থ্য সচেতনতা বিষয়ক প্রচার মাইকিংসহ যাদের মুখে মাস্ক নেই তাদের মাস্ক পরিয়ে দেয়া হয়।

কর্মসূচিতে নেতৃত্ব দিয়েছেন শহীদ জামিল ব্রিগেডের প্রধান সমন্বয়ক দেবাশিষ প্রামানিক দেবু। তিনি বলেন, ‘মৃত্যু ও সংক্রমণ কমলেও করোনার দক্ষিণ আফ্রিকান ভ্যারিয়েন্ট ‘ওমিক্রন’ উদ্বেগ তৈরী করছে। এটি ঠেকাতে স্বাস্থ্যবিধি নিয়ে উদাসীন মনোভাব তৈরি করা যাবে না। করোনায় যেকোনো ভ্যারিয়েন্টেই স্বাস্থ্যবিধি মানার বিকল্প নেই। আমরা যদি সঠিকভাবে স্বাস্থ্যবিধিগুলো মেনে চলি, তাহলে যেকোনো ভ্যারিয়েন্ট আসুক না কেন, সংক্রমণ বৃদ্ধির সম্ভাবনা কম থাকবে।’

দেবু বলেন, ‘করোনাকে মানুষ সাময়িক ভুলে গেলেও জামিল ব্রিগেড তার নিজস্ব গতিতেই কাজ করেছে। ‘আমাদের সকল হটলাইন নম্বর আগের মতোই চালু আছে। আমরা মানুষের বিপদে পাশে দাঁড়াতে এখনও প্রস্তুত। আমরা ফের মাইকিং শুরু করেছি। মানুষকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার অনুরোধ করছি। যেসব পথচারীরা মাস্ক পরছেন না, তাদেরকে তাৎক্ষণিক মাস্ক পরিয়ে দেওয়া হচ্ছে। চলমান কর্মসূচির ধারাবাহিকতায় জনগণ সচেতন হলে আমরা সকলেই বিপদ থেকে রক্ষা পাবো।’

কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন, মহানগর ওয়ার্কার্স পার্টির সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য সিরাজুর রহমান খান, জামিল ব্রিগেডের মনিটরিং সেলের সদস্য নাজমুল করিম অপু, সীতানাথ বণিক, বোয়ালিয়া থানার সদস্য বিজয় সরকার, রাজপাড়া থানার সদস্য ইফতিক হাসান, বোয়ালিয়া থানার সদস্য দুর্জয় দত্ত, কিশান, গৌরব ঘোষ, সম্মুখযোদ্ধা শ্রমিক বিশু শেখ, আলাউদ্দীন প্রমুখ।

এসবি/জগদীশ রবিদাস