এসপি সেজে পুলিশের সাথে প্রতারণা, ১০ বছরের কারাদণ্ড


নিজস্ব প্রতিবেদক: পুলিশ সুপার (এসপি) সেজে পুলিশের সাথে প্রতারণা করে মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে ১ লাখ ৭৫ হাজার টাকা হাতিয়ে নেওয়ায় এক ব্যক্তিকে ১০ বছরের কারাদণ্ড এবং ১০ লাখ টাকা জরিমানা করেছেন আদালত। রোববার দুপুরে রাজশাহী সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. জিয়াউর রহমান এ রায় দেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত ব্যক্তির নাম সোহাগ মাহমুদ বাপ্পী ওরফে রনি (৩১)। গোপালগঞ্জের কাশিয়ানি উপজেলার ছোট পারুলিয়া গ্রামে তার বাড়ি। বাবার নাম মো. সালাহউদ্দিন। রায় ঘোষণার সময় সোহাগ অনুপস্থিত ছিলেন। তাঁর অনুপস্থিতিতেই রায় ঘোষণা করেন আদালত।

আদালতের রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ইসমত আরা জানান, ২০১৯ সালের ২৮ অক্টোবর আসামি কৌশলে নিজেকে বগুড়া জেলার এসপি পরিচয় দিয়ে বগুড়া পুলিশ লাইন্সের এক কনস্টেবলের সঙ্গে কথা বলেন। এরপর এক দোকান থেকে মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে ১ লাখ ৭৫ হাজার টাকা নেন। পরে প্রতারণার বিষয়টি বুঝতে পেরে ওই কনস্টেবল বগুড়া সদর থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেন।

এরপর পুলিশ আসামি সোহাগকে শনাক্ত করে। পরে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ। পরে আদালতে তাঁর বিচার শুরু হয়। এরমধ্যেই জামিন নিয়ে লাপাত্তা হয়ে যান আসামি। সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে তাঁর অনুপস্থিতিতেই রায় ঘোষণা করা হলো।

আইনজীবী ইসমত আরা জানান, একটি ধারায় আদালত আসামিকে পাঁচ বছর সশ্রম কারাদণ্ড এবং পাঁচ লাখ টাকা জরিমানা করেন। আরেকটি ধারাতেও একই সাজা দেওয়া হয়েছে। গ্রেপ্তারের পর সাজা একটার পর একটা কার্যকর হবে। জরিমানার অর্থ পরিশোধ না করলে প্রতি পাঁচ লাখের জন্য আরও ছয় মাস করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড ভোগ করতে হবে আসামিকে।

এসবি/এসকে/এআইআর