উত্তাল বঙ্গোপসাগর, নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি


সাহেব-বাজার ডেস্ক: ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদ’র প্রভাবে কুয়াকাটা সংলগ্ন বঙ্গোপসাগর উত্তাল রয়েছে। বড় বড় ঢেউ তীরে এসে আছড়ে পড়ছে। স্বাভাবিক জোয়ারে বৃদ্ধি পেয়েছে নদ-নদীর পানি। এর ফলে বেড়িবাঁধের বাইরে অবস্থিত পরিবারগুলোর মাঝে আতঙ্ক বেড়ে গেছে।

এদিকে আহাওয়া অফিস পায়রা সমুদ্র বন্দরকে স্থানীয় তিন নম্বর সতর্ক সঙ্কেত দেখিয়ে যেতে বলেছে। এছাড়া সকল মাছধরা ট্রলারসমূহকে নিরাপাদ আশ্রয়ে থাকতে বলেছে।

সমুদ্র তীরবর্তী বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদ’র প্রভাবে আকাশ ঘন মেঘাচ্ছন্ন রয়েছে। ফলে গত দুইদিন ধরে সূর্যের আলো দেখা যায়নি।

রোববার সকাল থেকে উপকূলীয় এলাকায় থেমে থেমে গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি হচ্ছে। সেইসঙ্গে বেড়েছে শীতের তীব্রতা। আর ভোগান্তিতে পড়েছে নিম্নআয়ের মানুষ। রাস্তা-ঘাটে তেমন মানুষের আনাগোনাও দেখা যায়নি।

আবহাওয়া আফিস বলছে, পশ্চিম-মধ্য বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন উত্তরপশ্চিম বঙ্গোপসাগর এলাকায় অবস্থানরত ঘূর্ণিঝড় ‘জাওয়াদ’ আরও উত্তর দিকে অগ্রসর এবং দুর্বল হয়ে একই এলাকায় গভীর নিম্নচাপ আকারে অবস্থান করছে। চট্রগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরকে স্থানীয় তিন নম্বর সতর্ক সঙ্কের দেখিয়ে যেতে বলেছে। সকল মাছ ধরা ট্রলারসমূহকে নিরাপাদ আশ্রয়ে থাকতে বলেছে।

কুয়াকাটা ও আলীপুর মৎস্য সমবায় সমিতির সভাপতি মো. আনসার উদ্দিন মোল্লা বলেন, বর্তমানে সাগর উত্তাল রয়েছে। জেলেরা গভীর সমুদ্রে মাছ ধরা বন্ধ করে ট্রলার নিয়ে আড়ৎ ঘাটে শিববাড়িয়া নদীতে আশ্রয় নিয়েছে। তবে এখনও বেশকিছু ট্রলার সাগরে অবস্থান করছে।

এসবি/জেআর