ই-ভ্যালির বিরুদ্ধে দুদকের অনুসন্ধান শুরু


সাহেব-বাজার ডেস্ক : নলাইন মার্কেটপ্লেস ই-ভ্যালির বিরুদ্ধে আর্থিক অনিয়মের অনুসন্ধান শুরু করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন-দুদক। দুদকের পক্ষ থেকে ই-ভ্যালির আর্থিক অনিয়ম খতিয়ে দেখতে দুই সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। সংস্থার সহকারী পরিচালক মামুনুর রশীদ চৌধুরীকে প্রধান করে গঠিত কমিটির অপর সদস্য হলেন— সহকারী উপ-পরিচালক মুহাম্মদ শিহাব সালাম। বৃহস্পতিবার (৮ জুলাই) দুদকের দায়িত্বশীল এক কর্মকর্তা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

দুদক সূত্রে জানা গেছে, সম্প্রতি তারা বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে ই-ভ্যালির আর্থিক অনিয়ম খতিয়ে দেখার বিষয়ে একটি চিঠি পেয়েছে। ওই চিঠির সূত্র ধরেই অনুসন্ধান শুরু করা হয়েছে। অনুসন্ধানে ই-ভ্যালি গ্রাহকদের কাছে অগ্রীম টাকা নিয়ে কী করেছে, তা জানার পাশাপাশি এসব অর্থ মানিলন্ডারিং করে কোথাও পাচার করা হয়েছে কিনা, তাও জানার চেষ্টা করবে। গ্রাহকের অর্থ পাচার করা হলে ই-ভ্যালির বিরুদ্ধে মানিলন্ডারিং আইনে মামলা দায়ের করা হবে।

গত ৪ জুলাই বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে দুদকে পাঠানো চিঠিতে উল্লেখ করা হয়, ই-ভ্যালি গ্রাহকদের কাছ থেকে প্রচুর পরিমানেণে পণ্যের অর্ডারের নামে অগ্রীম অর্থ গ্রহণ করলেও তার বিপরীতে তাদের সম্পদ অনেক কম। এছাড়া মার্চেন্টদের কাছেও তাদের শত কোটিরও বেশি অর্থ দেনা রয়েছে। গ্রাহক ও মার্চেন্টদের মিলিয়ে মোট তিন শ’ কোটি টাকার কোনও হদিস পাওয়া যাচ্ছে না। এসব অর্থ আত্মসাত বা পাচার করা হয়েছে কিনা চিঠিতে তা খতিয়ে দেখার অনুরোধ করা হয়।

দুদকের একজন কর্মকর্তা জানান, এর আগে দুদকের কাছে গ্রাহক পর্যায়ের কিছু অভিযোগ জমা পড়েছিল। কিন্তু সেসব অভিযোগে সুনির্দিষ্টভাবে কিছু উল্লেখ ছিল না। বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে অনুসন্ধান শুরু করা হচ্ছে।

এসবি/এআইআর