আব্বাসের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র গ্রহণ


নিজস্ব প্রতিবেদক: আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনকে কটূক্তি করার মামলায় রাজশাহীর কাটাখালী পৌরসভার সাময়িক বরখাস্ত মেয়র আব্বাস আলীর বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র আমলে গ্রহণ করেছেন আদালত। আদালত আগামী ১৩ জুলাই এই অভিযোগপত্রের শুনানি গ্রহণের দিন ধার্য্য করেছেন।

সোমবার রাজশাহী সাইবার ট্রাইব্যুনালে আব্বাস আলীর এই মামলার ধার্য্য তারিখ ছিল। তাই সকালে তাঁকে রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে আদালতে নেওয়া হয়। আদালতের কার্যক্রম শেষে আবার তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। আব্বাস আলীর আইনজীবী পারভেজ তৌফিক জাহেদী এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, আদালত অভিযোগপত্র আমলে গ্রহণ করেছেন। অভিযোগপত্রের শুনানির জন্য ১৩ জুলাই দিন ধার্য্য করেছেন আদালত। আগামী ধার্য্য তারিখে আসামিকে তাঁর বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ পড়ে শোনানো হবে। পরে শুনানি শেষে অভিযোগ গঠন হতে পারে।

আওয়ামী লীগের টিকিটে মেয়র হওয়া আব্বাস আলীর দুটি অডিও রেকর্ড ছড়িয়ে পড়ে গত বছরের শেষের দিকে। এর একটিতে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করতে শোনা যায়। অন্যটিতে সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনকে কটূক্তি করতে শোনা যায়।

এ নিয়ে তাঁর বিরুদ্ধে প্রথমে বঙ্গবন্ধুকে কটূক্তির অভিযোগে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হয়। পরে ঢাকায় তিনি গ্রেপ্তার হন। এরপর মেয়র খায়রুজ্জামান লিটনকে কটূক্তির অভিযোগে আরেকটি মামলা হয়। গ্রেপ্তারের পর আব্বাস আলীকে মেয়রের পদ থেকে সাময়িক বরখাস্ত করে সরকার। এ ছাড়া পৌর আওয়ামী লীগের আহ্বায়কের পদ থেকে দল তাকে অব্যাহতি দেয়।

এসবি/আরআর/জেআর