ডিসেম্বর ১৭, ২০১৭ ৭:৫৬ অপরাহ্ণ

Home / শিল্প ও বাণিজ্য / এসআইবিএল এর শীর্ষ পদে রদবদল

এসআইবিএল এর শীর্ষ পদে রদবদল

সাহেব-বাজার ডেস্ক : ব্যাংকের টাকা তছরুপের অভিযোগের মুখে পদত্যাগ করেছেন সোস্যাল ইসলামী ব্যাংকের (এসআইবিএল) চেয়ারম্যান মেজর (অব) ডা. রেজাউল হক। এছাড়া আরেক পরিচালক ও এমডি শহীদ হোসেনও পদত্যাগ করেছেন।

চেয়ারম্যান হিসেবে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি অধ্যাপক আনোয়ারুল আজিম আরিফকে নির্বাচিত করা হয়েছে। নতুন এমডি হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন ফার্স্ট সিকিউরিটি ব্যাংকের অতিরিক্তি ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাজী ওসমান আলী। এছাড়া নির্বাহী কমিটির (ইসি) চেয়ারম্যান পদেও নতুন নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

সোমবার রাজধানীর ওয়েস্টিন হোটেলে অনুষ্ঠিত ব্যাংকটির বোর্ড সভায় এসব সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

সোমবার সাড়ে ৩ টায় বোর্ড মিটিং শুরু হয়। এসময় ব্যাংকের চেয়ারম্যান ও এমডি মিটিংয়ে উপস্থিত ছিলেন না। ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে পরিচালক পদ থেকে মেজর রেজাউল হক ও মো. আনিসুল হক পদত্যাগ করেন। এই দুইজন পরিচালক পদত্যাগ করায় চেয়ারম্যান ও ইসি কমিটির চেয়ারম্যানের পদও শূন্য হয়।

শেয়ারধারী প্রতিষ্ঠান হামদর্দ ল্যাবরেটরিজ মনোনিত পরিচালক ছিলেন মো. আনিসুল হক। কয়েকমাস আগে সাউথ ইস্ট ব্যাংক থেকে এসে এমডি হিসেবে যোগদানকারী শহীদ হোসেনও পদত্যাগ করেছেন বলে বৈঠকে জানানো হয়।

পরিচালকের শূন্য পদে অধ্যাপক আনোয়ারুল আজিম আরিফ ও বেলাল আহমেদকে নির্বাচিত করেছেন বোর্ড সদস্যরা। পরিচালক হওয়ার পরই আনোয়ারুল আজিম আরিফকে চেয়ারম্যান এবং বেলাল আহমেদকে ইসি কমিটির চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত করা হয়।

এছাড়া বর্তমান এমডি শহীদ হোসেন পদত্যাগ করায় তার জায়গায় কাজী ওসমান আলীকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

সূত্র জানায়, এসআইবিএলের টাকায় রাজনৈতিক খরচ চালাচ্ছেন বলে অভিযোগ উঠেছে বিএনপি নেতা মেজর (অব:) ডা. রেজাউল হকের বিরুদ্ধে। আগে ফ্রিডম পার্টি বর্তমানে বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত রেজাউল হক ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি নির্বাচনের পর দেশে অরাজক পরিস্থিতি সৃষ্টির জন্য পেট্রোল বোমার অর্থের অন্যতম জোগানদাতা।

ব্যাংকের চেয়ারম্যান হওয়ার সুবাদে ব্যাংকের ব্যাপক অর্থ তছরুম করে একটি চক্রের মাধমে আত্মসাৎ ও বিএনপি-জামায়ত চক্রের সমর্থনে ব্যয় করছেন। শীর্ষ ব্যক্তির অর্থআত্মসাৎ ও জালিয়াতির ফলে গ্রাহকদের হাজার হাজার কোটি টাকার ঝুকিপূর্ণ। বিভিন্ন শাখা থেকে প্রায় ২ হাজার ১৫০ কোটি টাকার ঋণে অনিয়মে তিনি সরাসরি জড়িত বলে অভিযোগ রয়েছে।

ব্যাংকটির চার মেয়াদে চেয়ারম্যান পদে থেকে সিএসআর খাতসহ অন্যান্য খাত থেকে টাকা তছরুপ করেছেন তিনি। ব্যাংকের টাকা ব্যয় করে নোয়াখালী থেকে আগামী নির্বাচনে বিএনপির পক্ষ থেকে নির্বাচন করার চেষ্টা করছেন তিনি।

উল্লেখ্য, এর আগে চলতি বছরের ৫ জানুয়ারি আরেকটি হোটেলে অনুষ্ঠিত বোর্ড সভায় ইসলামী ব্যাংকের চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও এমডি পদত্যাগ করেন। ওই বোর্ড সভায় নতুন আরাস্তু খান চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন ও আব্দুল হামিদ মিঞা এমডি হিসেবে নিয়োগ পান।

এসবি/এমই

Print Friendly, PDF & Email

Check Also

বগুড়ায় আলুর বাজারে ধস, কেজি ১ টাকা

সাহেব-বাজার ডেস্ক : বগুড়ায় আলুর বাজারে ব্যাপক ধস নেমেছে। ৮৪ কেজির এক বস্তা আলুর দাম …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *