নভেম্বর ২৩, ২০১৭ ১:৪০ অপরাহ্ণ

Home / রাজশাহীর সংবাদ / সাংবাদিকদের অযথা হয়রানি করলে ব্যবস্থা

সাংবাদিকদের অযথা হয়রানি করলে ব্যবস্থা

রাবি প্রতিবেদক : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) জনসংযোগ দফতরের প্রশাসক অধ্যাপক ড. প্রভাষ কুমার কর্মকার বলেছেন, অকাট্য প্রমান ও তথ্য-উপাত্ত থাকলে সাংবাদিকরা যেকোন সংবাদ লিখতে পারবেন। সত্য কথা লিখতে গিয়ে যদি কেউ অযথা হয়রানির শিকার হয় তাকে জনসংযোগ দফতরের পক্ষ থেকে সার্বিক সহযোগিতা করা হবে। হয়রানিকারীরা যতো শক্তিশালীই হোক না কেন তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মঙ্গলবার বিকেলে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার্স ইউনিটির (রাবি) সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এসব কথা বলেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দফতরে অনুষ্ঠিত মতবিনিময়সভায় রাবি রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি কায়কোবাদ খান ও সাধারণ সম্পাদক হুসাইন মিঠুর নেতৃত্বে সংগঠনটির সংবাদকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

মতবিনিময়কালে ড. প্রভাষ কুমার কর্মকার আরও বলেন, সংবাদকর্মীদের প্রতি অনুরোধ থাকবে অনুমাননির্ভর কোন সংবাদ করবেন না। তথ্য-উপাত্ত সমৃদ্ধ নয় বা বস্তুনিষ্ঠ নয় এমন কিছু ছাপার আগে আমার সঙ্গে যোগাযোগ করলে তথ্য যাচাই-বাছাইয়ে সহযোগিতা করা হবে।

তিনি বলেন, রাবি রিপোর্টার্স ইউনিটি দীর্ঘ ১৬ বছর ধরে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা লালন করে বাঙালি জাতীয়তাবাদের নিরীখে আমাদের সমাজের পুঞ্জিভূত বাধা-বিপত্তি, সমস্যাসহ খুটিনাটি বিভিন্ন কিছুর ওপর আলোকপাত করে সংবাদ পরিবেশন করে যাচ্ছে।

মাননীয় উপাচার্য বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দফতরের প্রশাসক হিসেবে আমাকে নিয়োগ দানের মাধ্যমে এমন একটি গুরুত্বপূর্ণ সংগঠনের সঙ্গে একত্রিত হয়ে কাজ করার সুযোগ দিয়েছেন। পারষ্পরিক সম্পর্ক এবং হৃদ্যতার ভিত্তিতে আমরা আগামী দিনের পথ চলবো।

ড. প্রভাষ কুমার কর্মকার বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কর্তাব্যক্তিদের সঙ্গে সংবাদকর্মীরা একটা জায়গায় এক। মাননীয় উপাচার্যসহ এই প্রশাসনের সবাই এক সময় এই বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ছিল। আপনারা এই বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান শিক্ষার্থী।

এজন্য আমাদের লক্ষ্য এক এবং অভিন্ন। এটা আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়; এই বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তির প্রশ্নে আমরা সবাই এক। এই বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি যদি অক্ষুন্ন থাকে এবং উত্তরোত্তর সুনাম বৃদ্ধি পায় তাহলে পুরো বিশ্ববিদ্যালয় পরিবার ধন্য হবে।

মতবিনিময়ের সময় অন্যান্যদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ প্রতিদিনের রাবি প্রতিনিধি মর্তুজা নুর, দ্যা ডেইলি স্টারের আরাফাত রাহমান, দৈনিক করতোয়ার শিহাবুল ইসলাম, দৈনিক প্রকৃতির সংবাদের হাসান মাহমুদ, দৈনিক সংবাদের খায়রুল ইসলাম, দৈনিক আজকালের খবরের রিজভী আহমেদ ও দৈনিক ভোরের সূর্যের সায়মন জাহিদ প্রমুখ।

এসবি/এমএন/এসএস

Print Friendly, PDF & Email

Check Also

লুমের চাকা ঘুরল ১৫ বছর পর

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহী রেশম কারখানার লুমগুলো সর্বশেষ চলেছিল ২০০২ সালের ৩০ নভেম্বর। সরকার কারখানা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *