ডিসেম্বর ১৭, ২০১৭ ৭:৪৮ অপরাহ্ণ

Home / slide / ১২ বছর পর পৌর নির্বাচনের খবরে বাঘায় আনন্দ উল্লাস

১২ বছর পর পৌর নির্বাচনের খবরে বাঘায় আনন্দ উল্লাস

নুরুজ্জামান, বাঘা : দীর্ঘ ১২ বছর পর আগামি ২৮ ডিসেম্বর রাজশাহীর বাঘা পৌর সভায় নির্বাচন হতে যাচ্ছে। এই নির্বাচনের খবর শুনে আনন্দ উল্লাসে মেতে উঠেছেন পৌরবাসি। যারা নির্বাচনে আসতে চান এ রকম প্রার্থীরা ইতোমধ্যে প্রিয়জন তথা কর্মী সমর্থকদের মিষ্টি মুখ করাতে শুরু করেছেন। বিশেষ করে চায়ের স্টল, হোটেল-রেস্তরা ও পাড়া-মহল্লার দোকান গুলোয় এখন শুধু’ই নির্বাচনের আমেজ।

সংশ্লিষ্ঠ সুত্রে জানা গেছে, সারা দেশের প্রায় অর্ধশতাধিক পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদে আগামি ২৮ ডিসেম্বর ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। ১২ নভেম্বর এসব পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হবে। সম্প্রতি নির্বাচন কমিশন (ইসি) এ সংক্রান্ত ফাইল অনুমোদন করেছে।

ইসির সংশ্লিষ্টরা জানান, নভেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহ পর্যন্ত যেসব পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদ ভোট গ্রহণের উপযোগী হবে সেগুলোতে ডিসেম্বরে ভোট হবে।

তারা আরও জানান, যে সমস্ত পৌর সভায় সীমানা পুন:নির্ধারণ, আইনগত জটিলতা, ভোটার তালিকা পুনর্বিন্যাসসহ নানা জটিলতায় দীর্ঘদিন ভোট হয়নি। সেগুলোতেও নির্বাচন হবে। এর ফলে বছরের পর বছর পদ আঁকড়ে থাকা এসব পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদের জন প্রতিনিধিদের শাসনের অবসান হতে যাচ্ছে। তথ্য মতে, নির্বাচন উপযোগী পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদগুলোর তফসিল ঘোষণা করা হবে ১২ নভেম্বর। ইতোমধ্যে তফসিল ঘোষণা সংক্রান্ত ফাইল মঙ্গলবার ইসি অনুমোদন করেছে। আর এই অনুমোদনের মধ্যে রয়েছে বাঘা পৌর সভা ।

বাঘা উপজেলা নির্বাচন অফিসার মজিবুল আলম জানান, সিমানা সংক্রান্ত জটিলতার কারনে বাঘা পৌর সভায় এতদিন নির্বাচন দেয়া সম্ভব হয়নি। তবে এই মুহুর্তে আর কোন আইনি জটিলতা নেই। ফলে বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন (ইসি) যে ঘোষণা দিয়েছেন তার আলোকে বাঘা পৌর সভায় ১২ বছর পর ডিসেম্বরে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

স্থানীয় একাধিক সুত্রে জানা গেছে, গত ১২ বছর পুর্বে শেষ বারের মতো বাঘা পৌর সভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ওই নির্বাচনে সাবেক মেয়র আবদুর রাজ্জাককে মাত্র চার’শ ভোটে পরাজিত করে মেয়র নির্বাচিত হন আ’লীগ নেতা আক্কাস আলী। এরপর তিনি পৌর সভাটিকে তৃতীয় শ্রেণী থেকে দ্বিতীয় এবং সর্বশেষ এ বছর প্রথম শ্রেণীতে উন্নিত করা সহ ৩ ইউনিয়নের আংশিক জায়গা দখল করা নিয়ে সিমানা জটিলতা এবং একের-পর এক মামলা মোর্কাদ্দমা করায় এ উপজেলায় চার ইউনিয়ন-সহ বাঘা পৌর সভায় ভোট বন্ধ রয়েছে।

বাঘা বাজার বনিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও আসন্ন নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী কামাল হোসেন বলেন, সময়ের পরিবর্তন এসছে। মামলা দিয়ে ১২ বছর নির্বাচন বন্ধ রাখার পর পৌর এলাকায় যে পরিমাণ দুর্ণীতি হয়েছে তা হজম করতে এখন দিনের-পর দিন ঢাকায় দৌড়ঝাপ করছেন বর্তমান পৌর মেয়র আক্কাস আলী। তার বিরুদ্ধে সম্পতি স্থানীয়-সহ বিভিন্ন জাতীয় দৈনিকে খবর ছাপা হয়েছে। আর এ খবরে স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয় তাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছেন।

তবে বাঘা পৌর মেয়র আক্কাস আলীর বিরুদ্ধে পত্রিকায় সংবাদ ছাপা হওয়াকে কেন্দ্র করে সম্প্রতি স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয় থেকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়ার সত্যতা স্বীকার করলেও দুর্ণীতির অভিযোগ সঠিক নয় দাবি করে বলেন, দল মনোনয়ন দিলে তিনি আবারও নির্বাচন করবেন।

এ বিষয়ে ইসির ভারপ্রাপ্ত সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, অনেক ইউপি ও পৌরসভা নির্বাচন নিয়ে মামলা, সীমানা নির্ধারণ ও ভোটার তালিকা পুনর্বিন্যাস না হওয়ায় দীর্ঘদিন ধরে নির্বাচন হয় না। এগুলো স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানের আওতাভুক্ত হলেও নির্বাচন না হওয়ার জন্য সাধারণ মানুষ ইসিকে দোষারোপ করে। তাই আমরা এসব সমস্যা নিরসনে বৈঠক করেছি। তিনি বলেন, নভেম্বরে তফসিল ঘোষণার আগ পর্যন্ত যেসব পৌরসভা ও ইউপি নির্বাচন উপযোগী হবে, তার সব কটিতেই নির্বাচন করে ফেলব।

এসবি/এনজেড/এআইআর

Print Friendly, PDF & Email

Check Also

নাটোরে বৃদ্ধ দম্পতির রহস্যজনক মৃত্যু, দুই ছেলে আটক

নাটোর প্রতিনিধি : নাটোরের লালপুরের কদিম চিলান গ্রামে স্বামী আব্দুস সোবাহান (৭৫) ও স্ত্রী মানিকজান …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *