ডিসেম্বর ১৫, ২০১৭ ১২:৩৮ অপরাহ্ণ

Home / slide / রাজশাহীতে মৌসুমের প্রথম কালবৈশাখীর হানা

রাজশাহীতে মৌসুমের প্রথম কালবৈশাখীর হানা

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহীতে তুমুল বৃষ্টির সম্ভাবনা আগে থেকেই জানিয়েছিল স্থানীয় আবহাওয়া অফিস। সময়ও বেঁধে দেওয়া হয়েছিল তিন দিন। দ্বিতীয় দিনে বৃষ্টির দেখা মিলেছিল খুবই সামান্য। কিন্তু শেষ দিন রোববার আকস্মিকভাবেই শুরু হলো কালবৈশাখী ঝড়। ঝড়ের সঙ্গে রেকর্ড হলো মৌসুমের সর্বোচ্চ বৃষ্টি।

রাজশাহী অঞ্চলে মৌসুমের প্রথম এই কালবৈশাখীর হানায় অসংখ্য ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। রাজশাহী আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, রোববার সন্ধ্যা ৭টা ৫ মিনিট থেকে ৭টা ১০ মিনিট পর্যন্ত কালবৈশাখীর আসল ঝাপটা বাতাস বয়ে গেছে। ওই পাঁচ মিনিট বাতাসের গতিবেগ ছিল ঘন্টায় ৯০ থেকে ৯৫ কিলোমিটার। কালবৈশাখী এসেছিল দক্ষিণ-পশ্চিম কোণ থেকে।

এদিকে হাঠাৎ কালবৈশাখী ঝড় শুরু হওয়ার এক মিনিট পরই শুরু হয় বৃষ্টি। সন্ধ্যা ৭টা ৬ মিনিট থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত বৃষ্টি চলছিলই। এ সময় ৪৭ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করেছে আবহাওয়া অফিস। এটিই মৌসুমের সর্বোচ্চ বৃষ্টি। ঝড় ও বৃষ্টির কারণে রাত সাড়ে ৯টা পর্যন্ত রাজশাহীর কোথাও বিদ্যুৎ ছিল না। বিদ্যুৎ সরবরাহ কখন স্বাভাবিক হবে তা জানাতে পারেননি বিদ্যুৎ বিভাগের কর্মকর্তারা।

এদিকে বৃষ্টিতে রাজশাহী মহানগরীর বেশকিছু এলাকায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়। বিশেষ করে নগরীর প্রাণকেন্দ্র সাহেববাজার জিরোপয়েন্ট, রেলগেট, গণকপাড়া, কাদিরগঞ্জে হাঁটুসমান পানি জমে যায়। ফলে দেখা দেয় যানবাহনের সংকট। এতে চরম দুর্ভোগে পড়েন মানুষ। নর্দমা থেকে তুলে রাখা কাঁদাগুলোও বৃষ্টির পানিতে ছড়িয়ে পড়ে সড়কে।

Rajshahi Kalabeshakhi & Rain News Photo 30.04 (2)

রাজশাহী সদর ফায়ার স্টেশন সূত্রে জানা গেছে, কালবৈশাখী ঝড়ে রাজশাহী-চাঁপাইনবাবগঞ্জ মহাসড়কের ওপর বহু গাছ ভেঙে পড়েছে। বাঘা উপজেলায় সড়কে গাছ পড়ে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমের গাড়ি আটকে যাওয়ার খবর পেয়েছে ফায়ার সার্ভিস। এছাড়া তানোরের কালিগঞ্জ, পুঠিয়া ও রাজশাহী মহানগরীর তালাইমারী এবং সিটি বাইপাস এলাকায় গাছ পড়ে সড়ক বন্ধ হয়ে যাওয়ার খবর পাওয়া যায়।

রাত সাড়ে ৯টা পর্যন্ত গাছগুলো অপসারণ করে যান চলাচল স্বাভাবিক করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছিল ফায়ার সার্ভিসের সদর ও বিভিন্ন উপজেলার ইউনিটগুলো। রাজশাহী মেডিকেল কলেজের জরুরী বিভাগে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ঝড়ের কারণে আহত হয়ে কেউ হাসপাতালে ভর্তি হননি। তবে নগরীর শ্যামপুর এলাকার আসিয়া বেগম (৩৫) নামে এক নারীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে, যিনি ঝড়ের সময় ভয়ে জ্ঞান হারিয়ে ফেলেছিলেন।

রাজশাহীর বিভিন্ন উপজেলায় খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, কালবৈশাখী ঝড়ে আমের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। ক্ষতি হয়েছে কলা ও পেপে বাগানেরও। ঝড়ে পড়ে গেছে ভুট্টা গাছ ও সবজির মাচা। তবে সবমিলিয়ে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ কতো তা জানা যায়নি।

Print Friendly, PDF & Email

Check Also

শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস আজ

সাহেব-বাজার ডেস্ক : আজ শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস। ১৯৭১ সালের এ দিনে দখলদার পাকহানাদার বাহিনী ও …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *