ডিসেম্বর ১৭, ২০১৭ ৭:৩৭ অপরাহ্ণ

Home / slide / ভাঙা হলো মেয়র কক্ষের তালা, ঢোকেননি বুলবুল

ভাঙা হলো মেয়র কক্ষের তালা, ঢোকেননি বুলবুল

নিজস্ব প্রতিবেদক : অবশেষে রাজশাহী সিটি করপোরেশনের (রাসিক) মেয়রের অফিস কক্ষের তালা দুটি ভাঙা হয়েছে। তবে বেলা ৩টা পর্যন্ত মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল সেই অফিসে ঢোকেননি। তিনি রাসিকের সচিবের কক্ষেই বসে ছিলেন।

বিষয়টি নিয়ে জানতে চাইলে মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল বলেন, ‘নগর ভবনে মেয়র যেখানে বসবেন, সেটিই তার অফিস। এখন এখানে বসে আছি, এটাই অফিস। আমার অফিসে তালা দিয়ে রেখে নগর ভবনে আজ নিকৃষ্ট ইতিহাস সৃষ্টি করা হলো।’

মেয়র বলেন, বিকেল ৫টা পর্যন্ত তিনি নগর ভবনে থাকবেন। আজ আনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্ব হস্তান্তর করা না হলে আগামিকাল আবার আসবেন কী না, জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি নির্বাচিত মেয়র। আদালতও আমার পক্ষে রায় দিয়েছেন। সুতরাং আনুষ্ঠানিকতার কিছু নেই। আমি মেয়র হিসেবেই নগর ভবনে বসে আছি। কাল অফিস করতেও পারি।’

প্রসঙ্গত, ২০১৫ সালে ৭ মে সিটি মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলকে মেয়র পদ থেকে সাময়িক বরখাস্ত করে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়। ২০১৬ সালের ১০ মার্চ উচ্চ আদালত তার বরখাস্ত আদেশ অবৈধ ঘোষণা করেন।

গত মঙ্গলবার স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের উপসচিব মাহমুদুল আলম স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে উচ্চ আদালতের নির্দেশনা বাস্তবায়নে ভারপ্রাপ্ত মেয়র ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাকে নির্দেশনা দেওয়া হয়।

এরপরই রোববার সকালে দায়িত্ব নিতে নগর ভবনে যান মহানগর বিএনপির সভাপতি মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল। গিয়ে দেখেন, তার কক্ষটি তালাবদ্ধ। এ নিয়ে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। পরে দুপুরে নগর ভবনে ভাঙচুরের ঘটনাও ঘটে। এরপর পুরো নগর ভবনে পুলিশ মোতায়েন করা হয়।

পরে দুপুর ২টার দিকে রাসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. শরীফ উদ্দীন ও সচিব মাহাবুবুর রহমান পুলিশের সহযোগিতায় মেয়রের অফিস কক্ষের দুটি তালা ভাঙেন। ড. শরীফ উদ্দীন বলেন, কে বা কারা তালা দিয়েছিল তিনি জানেন না। তবে দরজা খোলা হয়েছে, অফিসের ভেতর কী কী আছে তার তালিকা করা হচ্ছে।

Print Friendly, PDF & Email

Check Also

নাটোরে বৃদ্ধ দম্পতির রহস্যজনক মৃত্যু, দুই ছেলে আটক

নাটোর প্রতিনিধি : নাটোরের লালপুরের কদিম চিলান গ্রামে স্বামী আব্দুস সোবাহান (৭৫) ও স্ত্রী মানিকজান …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *