অক্টোবর ২৪, ২০১৭ ২:৫০ পূর্বাহ্ণ

Home / slide / নির্বাচন প্রতিহত করার ক্ষমতা বিএনপির নেই : ওবায়দুল কাদের

নির্বাচন প্রতিহত করার ক্ষমতা বিএনপির নেই : ওবায়দুল কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক : আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আগামী সংসদ নির্বাচন প্রতিহত করার মতো ক্ষমতা বিএনপির নেই। আদালতে বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া যদি নির্বাচনে অযোগ্যও হন, তাও নির্বাচন প্রতিহত করতে পারবে না দলটি।

‘খালেদা জিয়াকে সাজা দিয়ে নির্বাচনে অংশ নেওয়ার পথ বন্ধ করা হলে ভোটও হবে না’ বলে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর গত বুধবার যে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তার প্রতিক্রিয়ায় নিজের এই অভিমত জানান ওবায়দুল কাদের।

শুক্রবার দুপুরে রাজশাহী কলেজ মাঠে বিভাগীয় ডিজিটাল উদ্বোধনী মেলার উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘আদালত খালেদাকে সাজা দিলে তিনি নির্বাচনে অংশ নেয়ার অযোগ্য হবেন। আদালতের রায় জনগণ অমান্য করবে না। বিএনপি অমান্য করলে জনগণ তা প্রতিহত করবে। নির্বাচন প্রতিহত করার মতো কোনো ক্ষমতা বিএনপির নেই। তারা ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারী পারেনি, আগামীতেও পারবে না।’

এর আগে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তখন তিনি বলেন, ‘দেশ ডিজিটাল হয়েছে। নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলব- কাজে-কর্মে স্মাট হতে হবে। ডিজিটাল বাংলাদেশের সুবিধা নিয়ে নিজেদের এগিয়ে নিতে হবে। তবে আচার ব্যবহারে ডিজিটাল হতে বলব না। সেটা এনালগ থাকাইভালো। ছোটদের স্নেহে, বড়দের শ্রদ্ধা, শালীনতা বজায় রাখা- এগুলো এনালগ আচার-ব্যবহার।’

মন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশ এখন নেতা উৎপাদনের বিরাট কারখানা। পাতি নেতা, সিকি নেতা- হরেক রকমের নেতা। তাদের ছবি দেখি বিলবোর্ডে। সামনে দেখলে চিনতে পারি না। বিলবোর্ডে সবাই নায়ক হয়ে যায়! এরা নিজেদের প্রচারণায় শেখ হাসিনাকে ব্যবহার করে, ওবায়দুল কাদেরকে ব্যবহার করে। এসব নেতা থেকে সাবধান। দেশকে কর্মী উৎপাদনের কারখানা করতে হবে।’

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, তথ্য ও যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও রাজশাহী মহানগরের সভাপতি এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন, একসেস টু ইনফরমেশন প্রকল্পের জনপ্রেক্ষিত বিশেষজ্ঞ নাইমুজ্জামান মুক্তা এবং রাজশাহী কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মুহা. হবিবুর রহমান।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন রাজশাহীর বিভাগীয় কমিশনার (ভারপ্রাপ্ত) মুনির হোসেন। বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ই এই মেলার আয়োজন করেছে। মেলায় রাজশাহী বিভাগের বিভিন্ন সরকারী-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের ৬৫টি স্টল রয়েছে। তিন দিন ব্যাপী এ মেলা প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

Print Friendly, PDF & Email

Check Also

গৃহবধূর আত্মহত্যা, মিমাংসায় মূল্য নির্ধারণ!

বাগমারা প্রতিনিধি : রাজশাহীর বাগমারা উপজেলায় যৌতুকের বলিতে বিষপানে আত্মহত্যা করেছে এক গৃহবধু। গৃহবধুর আত্মহত্যায় …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *