Ad Space

তাৎক্ষণিক

নিরাপত্তা সম্মেলনে যোগ দিতে জার্মানিতে পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী

ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০১৭

সাহেব-বাজার ডেস্ক : ৫৩তম মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে যোগ দিতে জার্মানিতে পৌঁছেছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। স্থানীয় সময় আজ শুক্রবার সকাল ৬টায় বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রীকে ফুল দিয়ে স্বাগত জানান জার্মানিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ইমতিয়াজ আহমেদ। বিমানবন্দর থেকে প্রধানমন্ত্রী মিউনিখ ম্যারিয়ট হোটেলে যান। তিন দিনের সফরকালে তিনি সেখানেই অবস্থান করবেন।

গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ১০টা ৫ মিনিটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ছাড়েন প্রধানমন্ত্রী। বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রীকে বিদায় জানান শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, বেসামরিক বিমান চলাচল ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম ও ইকবাল সোবহান চৌধুরী, জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ আ স ম ফিরোজ, মন্ত্রিপরিষদ সচিব, তিন বাহিনীর প্রধানগণ এবং উচ্চপদস্থ বেসামরিক ও সামরিক কর্মকর্তারা।

স্থানীয় সময় রাত সোয়া ১টায় আবুধাবি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মাদ ইমরান প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানান। এক ঘণ্টার যাত্রাবিরতি শেষে স্থানীয় সময় রাত সোয়া ২টায় মিউনিখের উদ্দেশ্যে রওনা হন শেখ হাসিনা।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী, মুখ্য সচিব কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী, পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হক, স্বরাষ্ট্র সচিব কামালউদ্দিন আহমেদ ও প্রেস সচিব ইহসানুল করিম এই সফরে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আছেন।

জার্মানিতে দুই দিনের এই সফরে নিরাপত্তা সম্মেলনে যোগ দেওয়ার পাশাপাশি জার্মান চ্যান্সেলর আঙ্গেলা মারকেলের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করবেন শেখ হাসিনা।

শুক্রবারই মিউনিখের বাইরিশার হফ কনফারেন্স হলে নিরাপত্তা সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন প্রধানমন্ত্রী। এ সম্মেলনে যোগ দেওয়া রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানদের সম্মানে রাতে মিউনিখের মেয়রের দেওয়া নৈশভোজেও তিনি অংশ নেবেন।

দুই নেতার বৈঠকে উন্নয়ন সহযোগিতা, বাণিজ্য ও বিনিয়োগ, টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে পারস্পরিক সহযোগিতা, জলবায়ু পরিবর্তনজনিত ঝুঁকি হ্রাস, ইউরোপে চলমান শরণার্থী ও অভিবাসন সংকট, বৈশ্বিক সন্ত্রাসবাদ ও সহিংস জঙ্গিবাদসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক বিষয় নিয়ে আলোচনা হবে বলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাহমুদ আলী জানিয়েছেন।

মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে আগামীকাল শনিবার ‘ক্লাইমেট অ্যান্ড হিউম্যান সিকিউরিটি’ শীর্ষক অধিবেশনে আলোচনায় অংশ নেবেন শেখ হাসিনা। এ অধিবেশনে ফিনল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট ও নরওয়ের প্রধানমন্ত্রীর অংশ নেওয়ার কথা রয়েছে।

১৯৬৩ সালে মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনের যাত্রা শুরু হয়। স্নায়ুযুদ্ধের পটভূমিতে তৈরি হলেও পাঁচ দশকের বেশি সময় ধরে এই সম্মেলন বিশ্ব নিরাপত্তা ও বিভিন্ন পরিবর্তনের পরিপ্রেক্ষিত নিয়ে আলোচনা করে থাকে। এবারই প্রথম বাংলাদেশের কোনো রাষ্ট্র বা সরকার প্রধান এই সম্মেলনে যোগ দেওয়ার আমন্ত্রণ পেলেন।

মিউনিখ থেকে শনিবার রাতে দেশের উদ্দেশ্যে রওনা হবেন প্রধানমন্ত্রী। পরদিন রাতে তার ঢাকা ফেরার কথা।