Ad Space

তাৎক্ষণিক

সাগর-রুনি হত্যাকাণ্ড তদন্তের অগ্রগতি জানেন না স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ফেব্রুয়ারি ৯, ২০১৭

সাহেব-বাজার ডেস্ক : সাংবাদিক দম্পতি সাগর রুনির হত্যাকাণ্ড মামলার অগ্রগতি নিয়ে তেমন অবগত নন বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। তিনি আজ (বৃহস্পতিবার) দুপুরে আার্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের হেডকোয়ার্টারে কল্যাণ সভার অনুষ্ঠানশেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে একথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, সাগর-রুনির মামলার অগ্রগতির জন্যই সিআইডি থেকে র‌্যাবে স্থানান্তর করা হয়েছে। অগ্রগতির ব্যাপারে তেমন অবগত নই। তবে র‌্যাব চেষ্টা করছে দ্রুত সময়ের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিল করার। সাবেক এসপি বাবুল আক্তার স্ত্রী হত্যা মামলার অগ্রগতি নিয়ে প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, এই মামলার তদন্ত কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। আশা করি, শিগগিরই প্রতিবেদন জমা দিতে পারবে পুলিশ।

বৈধ অস্ত্রের অবৈধ ব্যবহার কেন হচ্ছে- এমন প্রশ্ন করলে তিনি জানান, অস্ত্র বৈধ হোক আর অবৈধ হোক যারাই অন্যায়ভাবে ব্যবহার করছে তাদের আমরা আইনের কাঠগড়ায় দাঁড় করাচ্ছি। এ ক্ষেত্রে আমরা কাউকে ছাড় দিচ্ছি না এবং কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। যারাই বেআইনি কাজ করবে তাদের শাস্তি ভোগ করতে হবে। এর আগে আার্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের হেডকোয়ার্টারে কল্যাণ সভায় তিন প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন। বিভিন্ন জেলা থেকে আসা এপিবিএন ও এসপিবিনের সদস্যরা অংশ নেন। তাদের বিভিন্ন সমস্যা তুলে ধরেন মন্ত্রীর কাছে।

মন্ত্রী তাদের সকল সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দিয়ে বলেন, আপনারা দেশের জন্য কাজ করছেন। জনগণের জানমাল নিরাপত্তায় নিজকে বিলিয়ে দিচ্ছেন। তাই আপনাদেরও অন্যান্য বাহিনীর মতো সকল সুযোগ-সুবিধা প্রধান করতে মন্ত্রণালয় চেষ্টা করে যাচ্ছে।

তিনি বলেন, এক সময় মানুষ পুলিশকে দেখলে ভয় পেত। এখন মানুষ আর ভয় পায় না কারণ পুলিশ জনগণেরর বন্ধু হয়ে জনগণের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছে বলেই পুলিশ সাধারণ মানুষের হৃদয়ে অধিষ্ঠিত। সবার কাছে পুলিশের অবস্থা বিশ্বাসের স্থল।

এর আগে কল্যাণ সভা অনুষ্ঠানে এপিবিএনের সমস্ত আবদার যৌক্তিক উল্লেখ করে তিনি বলেন, আপনাদের জন্য আবাসন ব্যবস্থা, সন্তানদের সুশিক্ষিত করে গড়ে তোলার জন্য স্কুলের ব্যবস্থা অবশ্যই সরকারের বিবেচনায় রয়েছে। পদায়নের ব্যাপারেও মন্ত্রালয় ধীরে ধীরে ব্যবস্থা নেবে। প্রজেক্ট আকারে সেগুলো জমা দেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে তিনি নির্দেশও প্রদান করেন।

এপিবিএনের সদস্যদের মিশনে পাঠানো নিয়ে বলেন, আমরা চেষ্টা করছি এপিবিএনের সদস্যরাও যাতে মিশনে অন্যান্য বাহিনীর মতো সমভাবে অংশ নিতে পারে সেই দিকটি আমরা অবশ্যই দেখব। এসময় অনুষ্ঠানে পুলিশের অতিরিক্ত আইজি মোখলেসুর রহমান ও আার্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের অতিরিক্ত আইইজি সিদ্দিকুর রহমানও বক্তব্য রাখেন।