Ad Space

তাৎক্ষণিক

বাবাকে গলাটিপে হত্যা : ছেলে ও তার স্ত্রীর রিমান্ডের আবেদন

জানুয়ারি ১০, ২০১৭

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহীতে আবদুল শেখ (৬৫) নামে এক ব্যক্তিকে গলাটিপে হত্যার ঘটনায় গ্রেফতার ছেলে ও তার স্ত্রীর সাত দিনের রিমান্ডের আবেদন করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার দুপুরে তাদের রাজশাহীর মুখ্য মহানগর হাকিমের আদালতে হাজির করে এই রিমান্ডের আবেদন করা হয়।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা নগরীর রাজপাড়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) হায়দার আলী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, গ্রেফতার শরীফুল ইসলাম ওরফে শরীফ ও তার স্ত্রী হাবিবা আক্তার লাইজুকে আদালতে হাজির করে তাদের প্রত্যেকের সাত দিন করে রিমান্ডের আবেদন করা হয়। তবে আবেদনের শুনানি হয়নি। শুনানির দিনও ঠিক হয়নি। আদালত আসামিদের কারাগারে পাঠিয়েছেন।

সোমবার সকালে নগরীর বহরমপুর এলাকার বৃদ্ধ আবদুল শেখকে গলাটিপে হত্যার অভিযোগ ওঠে তার বড় ছেলে আবু তাহের ওরফে সুজন (৪০) ও ছোট ছেলে শরীফুল ইসলাম ওরফে শরীফের বিরুদ্ধে (৩০)। টাকা পয়সা নিয়ে বিরোধের জেরে এই হত্যাকান্ড ঘটে। এ ঘটনায় সোমবার রাতে নিহতের মেজ ছেলে আবু বাক্কার ওরফে সুরুজ (৩৫) থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

মামলায় সুজন, তার স্ত্রী আক্তারুন্নেশা এবং শরীফ ও তার স্ত্রী হাবিবা খাতুন লাইজুকে আসামি করা হয়। এর মধ্যে শরীফ ও লাইজুকে ঘটনার পরই পুলিশ আটক করে। পরে থানায় মামলা হলে তাদের ওই মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে তোলা হয়। তবে সুজন ও তার স্ত্রী আক্তারুন্নেশা ঘটনার পর থেকেই পলাতক আছেন।

এদিকে সোমবার সন্ধ্যায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজের মর্গে নিহত আবদুল শেখের ময়নাতদন্ত করা হয়েছে। পরে তার মরদেহ পরিবারের সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করা হয়। মরদেহের ময়নাতদন্ত করেন রামেকের ফরেনসিক বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. এনামুল হক।

তিনি বলেন, আবদুল শেখের শরীরে কোনো আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। ভিসেরা সংগ্রহ করে ঢাকায় পাঠানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে। ভিসেরা প্রতিবেদন হাতে পেলে জানা যাবে কীভাবে তার মৃত্যু হয়েছে।