ডিসেম্বর ১৩, ২০১৭ ৩:২২ অপরাহ্ণ

Home / slide / বাঘায় ইরানী নাগরিকদের মারপিটের অভিযোগে মামলা, দুইজনকে আদালতে প্রেরণ

বাঘায় ইরানী নাগরিকদের মারপিটের অভিযোগে মামলা, দুইজনকে আদালতে প্রেরণ

নিজস্ব প্রতিবেদক, বাঘা : বাঘায় ইরানী নাগরিকদের অন্যায়ভাবে আটকের পর মারপিট করে ডলার কেড়ে নেওয়ার অভিযোগে ৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। বাঘা থানার এসআই তরিকুল ইসলাম বাদী হয়ে মঙ্গলবার (১০-০১-১৭) এ মামলাটি দায়ের করেছেন।

অভিযুক্তরা হলেন, উপজেলার মনিগ্রাম বাজারের মোবাইল ব্যবসায়ী ইয়াকুবের ছেলে ইয়াজুল, স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল গনির ছেলে আরিফুল ও একই এলাকার মসলেমের ছেলে স্বপন।

পুলিশ জানায়, সোমবার সন্ধ্যার আগে এক নারিসহ তিনজন ইরানী নাগরিক-আলীনা জাফি ও তার স্ত্রী আলী লিমু আবসাদ এবং আলীনা জাফির বন্ধু আলী আহমাদুল একটি কার যোগে ইশ্বরদী থেকে রাজশাহী যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে তারা উপজেলার মনিগ্রাম বাজারে থেমে মোবাইল ব্যবসায়ী ইয়াজুলের দোকান থেকে একটি কার্ড রিডার (সিম সংযুক্ত করণ যন্ত্র)  কেনেন। দাম নেয়ার জন্য এক হাজার টাকার নোট দেন। মূল্য বাবদ ৫০ টাকা রেখে বাকি ৯’শ ৫০ টাকা ফেরত দেন ইয়াজুল ।

পরে ফেরত দেয়া টাকার মধ্যে থেকে তারা একটি নোট পরিবর্তন করে দেয়ার জন্য বলেন ব্যবসায়ী ইয়াজুলকে। এ নিয়ে বাক বিতন্ডার এক পর্যায়ে তাদের ছিনতাইকারি আখ্যা দিয়ে, বাজার এলাকার স্বপন ও ইয়াজুল- ইরানী দুই পুরুষ নাগরিককে কিল ঘুষি মারতে থাকেন।

পরে যোগ দেয় আওয়ালী লীগ নেতা ও মনিগ্রাম বাজার কমিটির সভাপতির আব্দুল গনির ছেলে আরিফুল। এ সময় তাদের মানিব্যাগে থাকা ইউএস ডলারসহ মানিব্যাগটি ছিনিয়ে নেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ইয়াজুল ও আরিফুলকে আটক করে। তাদের আটকের পর  রাত পৌনে ৮ টায় ইয়াজুলের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে এক’শ ইউএস ডলার উদ্ধার  করে পুলিশ। ইয়াজুলের দাবি মারপিটের সময় ইরানী নাগরিকই ওই মানিব্যাগটি তার দোকানে ফেলে দিয়েছিল।

বাঘা থানার অফিসার ইনচার্জ আলী মাহমুদ জানান, ডলারসহ মানিব্যাগটি উদ্ধারের পর তাদের ফেরত দেওয়া হয়েছে। মামলা দায়েরের পর দুইজনকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে এবং পলাতক স্বপনকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Print Friendly, PDF & Email

Check Also

চারঘাটে ফেনসিডিলসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক, চারঘাট : রাজশাহীর চারঘাটে ১৫ বোতল ফেনসিডিলসহ একজন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে চারঘাট …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *