সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৭ ৭:২০ অপরাহ্ণ

Home / slide / ডিসিসি মার্কেটে আগুন: ধসে পড়ার আশঙ্কায় পুরো ভবন

ডিসিসি মার্কেটে আগুন: ধসে পড়ার আশঙ্কায় পুরো ভবন

সাহেব-বাজার ডেস্ক : রাজধানীর গুলশান-১ এর ডিসিসি মার্কেটে এখনো জ্বলছে আগুন। আট ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও আগুন নেভানো সম্ভব হয়নি। প্রায় পুরো ভবনেই ছড়িয়ে পড়েছে আগুন। ইতোমধ্যে ভবনের দুটি অংশ ধসে পড়েছে। বাকি অংশও ধসে পড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। এজন্য নিরাপদ দূরত্বে থেকে আগুন নেভানোর কাজ করছে ফায়ার সার্ভিস।

গতকাল রাত আড়াইটার দিকে ডিসিসি মার্কেটের পাশের কাঁচাবাজার থেকে আগুন লেগে পড়ে তা ডিসিসি মার্কেটে ছড়িয়ে পড়ে। পরে রাত থেকে ফায়ার সার্ভিস কয়েকটি ইউনিট আগুন নেভাতে চেষ্টা করে।

কিন্তু ব্যবসায়ীদের অভিযোগ, আগুন লাগার অনেক পর ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে আসায় আগুন পুরো ভবনে ছড়িয়ে পড়ে। সময়মতো আসলে হয়তো অনেক কিছু বাঁচানো সম্ভব হতো। আগুন লাগার পর সকালে মার্কেটের পূর্ব অংশ ধসে পড়ে।

157

সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ট্রান্সফরমার বিস্ফোরণে ধসে পড়ে ভবনটির আরেক অংশ। এ কারণে পুরো ভবন ধসে পড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। আগুন নেভানোর কাজে অংশ নেয়া ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা নিরাপদ দূরত্বে থেকে কাজ করছে।

ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তা মাসুদুর রহমান আকন জানান, পুরো ভবনটি ধসে পড়ার সম্ভাবনা আছে। এজন্য লোকজনকে নিরাপদ দুরত্বে যেতে বলা হয়েছে। ইতোমধ্যে আগুনে কসমেটিস, সুগন্ধি, কাপড়, জুয়েলারি, জুতা, কনফেকশনারিসহ প্রায় দুই শতাধিক দোকান পুড়ে গেছে বলে ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন। তাদের আর্তনাদে ভারী হয়ে উঠেছে পুরো এলাকা। সকাল ১১টায় শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত আগুন জ্বলছিল।

এদিকে উৎসুক জনতার ভিড়ে আগুন নেভানোর কাজ করতে হিমশিম খেতে হচ্ছে ফায়ার সার্ভিস কর্মীদের। মানুষকে সরিয়ে যেতে কাজ করছে পুলিশ। মাইকিং করে তাদের সরিয়ে যেতে অনুরোধ করা হচ্ছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী লোকজনকে সিরিয়ে দিতে আপ্রাণ চেষ্টা চালাচ্ছে।

আগুন লাগার পর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আনিসুল হক, পুলিশ প্রধান এ কে এম শহীদুল হক ও ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার আসাদুজ্জামান মিয়া।

Print Friendly, PDF & Email

Check Also

ছিলেন র‌্যাম্প মডেল, হলেন জঙ্গি কমান্ডার

সাহেব-বাজার ডেস্ক : সোনারগাঁও-রেডিসনের মতো পাঁচ তারকা হোটেলগুলোতে র‌্যাম্প মডেলিং করতো ইমাম মেহেদী হাসান ওরফে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *