নভেম্বর ২৩, ২০১৭ ১:২৪ অপরাহ্ণ

Home / slide / নতুন বছরের প্রধান চ্যালেঞ্জ বিনিয়োগ বললেন অর্থমন্ত্রী

নতুন বছরের প্রধান চ্যালেঞ্জ বিনিয়োগ বললেন অর্থমন্ত্রী

সাহেব-বাজার ডেস্ক : নতুন বছরে বিনিয়োগই বাংলাদেশের অর্থনীতির বড় চ্যালেঞ্জ বলে মনে করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। ২০১৭ সালের প্রথম দিন রোববার অর্থ মন্ত্রণালয়ে ব্যাংকিং বিভাগের অনুষ্ঠানে এক সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি। নুতন বছরের প্রধান চ্যালেঞ্জ সম্পর্কে জানতে চাইলে অর্থমন্ত্রী বলেন, “চ্যালেঞ্জ? স্টিল ইনভেস্টমেন্ট।” দারিদ্র্য বিমোচন, প্রবৃদ্ধি, রিজার্ভ ও মূল‌্যস্ফীতিতে স্বস্তি থাকলেও ২০১৬ সালে বেসরকারি খাতে আশানুরূপ বিনিয়োগ টানতে পারেনি সরকার।

অর্থনীতিবিদদের মতে, সরকারি বিনিয়োগ বাড়লে বেসরকারি খাতেও বিনিয়োগে গতি আসে। কিন্তু গত পাঁচ বছর সরকারি বিনিয়োগ ব্যাপক বাড়লেও বেসরকারি বিনিয়োগ জিডিপির ২২ শতাংশের ঘরেই আটকে আছে; বাড়ছে না বিদেশি বিনিয়োগও।

ব্যবসায়ীরা বলছেন, শিল্পে গ্যাস-বিদ্যুতের সংযোগে বাধার কারণে অনেকে বিনিয়োগ প্রকল্প হাতে নিয়েও শেষ পর্যন্ত পিছিয়ে গেছেন। তার সঙ্গে রয়েছে অনুন্নত অবকাঠামো ও ব্যাংকঋণের উচ্চ সুদহার।

আবুল মাল আবদু মুহিত সাংবাদিকদের বলেন, “আমরা ২০১৬ সালে একটা ভালো বছর পার করেছি। আশা করছি, ২০১৭ সালও একইভাবে ভালো কাটবে। “সেটা হলে আমাদের যে ধরণের পরিকল্পনা প্রস্তুতি আছে, তাতে আমরা এগিয়ে যাবো। আমার মনে হয়, সপ্তম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনার জন্য আমরা যে সব হিসাব করেছি, সেটা পেরিয়ে আমরা অনেক দূর যেতে পারবো।”

অর্থ মন্ত্রণালয়ের ব্যাংকিং বিভাগের সচিব মো. ইউনুসুর রহমানের নেতৃত্বে বিভাগের কর্মকর্তারা মন্ত্রীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। অনুষ্ঠানে কর্মকর্তারা মন্ত্রীকে ফুল দিয়ে খ্রিস্টিয় নববর্ষের শুভেচ্ছা জানান। মন্ত্রী কর্মকর্তাদের আনা দুটি কেকও কাটেন।

বেসরকারি খাতে পিছিয়ে থাকলেও সরকারি খাতে বেশ কিছু বড় বিনিয়োগ রয়েছে ২০১৬ সালে। বছর শেষে দেশের সবচেয়ে বড় অবকাঠামো প্রকল্প পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ এরই মধ‌্যে অর্ধেক শেষ হয়েছে। ২০১৮ সালের মধ্যে বাকি কাজও শেষ হবে আশা করছে সরকার। এছাড়া আরও কয়েকটি বড় প্রকল্পের কাজ শুরু হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

Check Also

মেহনতী মানুষের মধ্যে ওয়ার্কার্স পার্টিকে বিকশিত করতে হবে: বাদশা

দিনাজপুর প্রতিনিধি : বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা এমপি বলেছেন, …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *