Ad Space

তাৎক্ষণিক

  • শ্রমিক ইউনিয়নের নির্বাচনে সংঘর্ষ, উদ্বিগ্ন সাংসদ বাদশা– বিস্তারিত....
  • ভোটের ‘ধর্মীয় সেন্টিমেন্টে’ ভাস্কর্য সরানোর ‘পক্ষে’ আ’লীগ-বিএনপি– বিস্তারিত....
  • আমরা আজ হেরে গেলাম : ভাস্কর মৃণাল হক– বিস্তারিত....
  • নতুনদের জন্য ভিডিও এডিটিং কোর্স নিয়ে এলো বিআইটিএম– বিস্তারিত....
  • সৌদিতে রোজা শুরু শনিবার, বাংলাদেশে রবিবার– বিস্তারিত....

থার্টিফাস্ট নাইটে নিরাপত্তার বলয়ে রাজশাহী

ডিসেম্বর ৩১, ২০১৬

নিজস্ব প্রতিবেদক : থার্টিফার্স্ট নাইটে নিরাপত্তার বলয়ে রয়েছে রাজশাহী। রাজশাহী মহানগর পুলিশ (আরএমপি) নগরজুড়ে মোতায়েন করেছে অতিরিক্ত পুলিশ। নিরাপত্তা হুমকি না থাকলেও যে কোন ধরণের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে সর্বোচ্চ সতর্ক রয়েছে আইন-শৃংখলা বাহিনী।

নগর পুলিশ জানিয়েছে, শনিবার দুপুরের পর থেকেই শহরের প্রবেশপথসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে চেকপোস্ট বসানো হয়েছে। সন্দেহভাজনদের তল্লাশি চলছে। বিভিন্ন স্পর্শকাতর ও জনগুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। জোরদার করা হয়েছে টহল ও গোয়েন্দা তৎপরতা।

এরই মধ্যে ইংরেজি নববর্ষ-২০১৭ উদযাপনে নগরবাসীর প্রতি বিধি নিষেধ আরোপ করেছে নগর পুলিশ। উচ্ছৃঙ্খলতা পরিহার করে শান্তিপূর্ণভাবে নববর্ষ উদযাপনের আহ্বান জানানো হয়েছে। এনিয়ে মাইকিংসহ নানান প্রচারণা চালিয়েছে পুলিশ।

আরএমপির নির্দেশনায় বলা হয়েছে, শনিবার বিকেলের পর থেকে কোনোভাবেই পটকা বা আতশবাজী ফুটানো যাবেনা। হাসপাতাল ও ক্লিনিকসহ স্পর্শকাতর স্থানগুলোর আশেপাশে উচ্চ শব্দে সাউন্ড বক্স বা মাইক ব্যবহার করা যাবেনা।

এছাড়া সব ধরনের অস্ত্র ও বিস্ফোরকদ্রব্য বহন নিষিদ্ধ করা হয়েছে ওই আদেশে। পুলিশের অনুমতি ছাড়া খোলা স্থানে অনুষ্ঠান বা কনসার্ট করা যাবেনা। সন্ধ্যার মধ্যেই নববর্ষ উদযাপন অনুষ্ঠান শেষ করতে হবে। না হলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানায় আরএমপি। তবে সন্ধ্যার পর নগরীর বিভিন্ন এলাকার খোলা স্থানে অনুষ্ঠান চলতে দেখা গেছে।

জানতে চাইলে রাজশাহী মহানগর পুলিশের মুখপাত্র ইফতেখায়ের আলম বলেন, সন্ধ্যার পর থেকে নগরীর কোথাও খোলা স্থানে অনুষ্ঠান আয়োজনের সুযোগ নেই। নগরীর নিরাপত্তায় সন্ধ্যার মধ্যে এসব অনুষ্ঠান শেষ করতে আয়োজকদের বলা হয়েছে। তবে ইনডোরে শান্তিপূর্ণ অনুষ্ঠান চলতে পারে। এসব অনুষ্ঠানে পটকা বা আতশবাজী, মাদক এবং উচ্ছৃঙ্খলতা পরিহার করতে বলা হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, নববর্ষ উদযাপন নির্বিঘ্ন করতে নগরীতে তিন শতাধিক অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। চেকপোস্ট, টহল ছাড়াও সাদা পোশাকে গোয়েন্দা পুলিশ মাঠে রয়েছেন। এনিয়ে নগরীতে কোন নিরাপত্তা ঝুঁকি নেই। তবুও যে কোন পরিস্থিতি এড়াতে পুলিশ সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থায় রয়েছেন। পুলিশ ছাড়াও অন্যান্য নিরাপত্তা বাহিনী কাজ করছে বলে জানান তিনি।