Ad Space

তাৎক্ষণিক

  • রাজশাহীতে বিস্ফোরকসহ আটকদের জঙ্গি সংশ্লিষ্টতা খুঁজছে পুলিশ– বিস্তারিত....
  • বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ে বৃষ্টি বাঁধা– বিস্তারিত....
  • ৩১১ রানে অলআউট শ্রীলঙ্কা, তাসকিনের হ্যাটট্রিক– বিস্তারিত....
  • দেড় কোটি টাকা নিয়ে উধাও জনতা সঞ্চয় ও ঋণদান সমবায় সমিতি– বিস্তারিত....
  • মোহনপুরে দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির মানববন্ধন– বিস্তারিত....

রাজশাহীতে আঞ্চলিক গণিত উৎসব অনুষ্ঠিত

ডিসেম্বর ২৩, ২০১৬

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহীতে অনুষ্ঠিত হলো আঞ্চলিক গণিত উৎসব। বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড কমিটির আয়োজনে ডাচ্-বাংলা ব্যাংকের পৃষ্ঠপোষকতা ও প্রথম আলোর ব্যবস্থাপনায় শুক্রবার রাজশাহী কলেজিয়েট স্কুলে এই উৎসব অনুষ্ঠিত হয়। এতে রাজশাহী, নাটোর, নওগাঁ ও চাঁপাইনবাবগঞ্জের ৯০৩ জন শিক্ষার্থী অংশে নেয়।

উদ্বোধনী পর্বে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন রাজশাহীর জেলা প্রশাসক কাজী আশরাফ উদ্দিন, আন্তর্জাতিক গণিত অলিম্পিয়াডের পতাকা উত্তোলন করেন ভেন্যু প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষক নূরজাহান বেগম, ডাচ্-বাংলা ব্যাংকের পতাকা  উত্তোলন করেন ব্যাংকের স্থানীয় ব্যবস্থাপক নজরুল ইসলাম।  বেলুন উড়িয়ে রাজশাহী জেলা প্রশাসক উৎসবের উদ্বোধন ঘোষণা করেন।

বেলা সোয়া ১১টার দিকে পরীক্ষার হল থেকে একে একে বের হতে থাকে শিক্ষার্থীরা। এরপর শুরু হয় উৎসবের সবচেয়ে মজার পর্ব-প্রশ্নোত্তর। এ সময় মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন, রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (রুয়েট) এর আর্কিটেকচার বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ইকবাল মতিন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক সালেহ হাসান নকিব, রুয়েটের গণিত বিভাগে অধ্যাপক ফিরুজ আলম, সহকারী অধ্যাপক আব্দুর রাজ্জাক, রাজশাহী টিচার্স ট্রেনিং কলেজের সাবেক উপাধ্যক্ষ আব্দুস সামাদ, রাজশাহী নগরের অনন্যা শিশু শিক্ষালয়ের পরিচালক মাসুদ রানা ও হাঙ্গেরীতে পিএইচ ডি গবেষক ফিজার আহাম্মেদ। এই পর্বে শিক্ষার্থীরা মজার মজার প্রশ্ন করে পুরস্কার জিতে নেয়।

অনুষ্ঠানের সঞ্চালক বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াডের একাডেমিক কমিটির সদস্য জাহিদ হুসাইন শিক্ষার্থীদের মুখস্থ, মাদক এবং মিথ্যাকে না বলার অঙ্গীকার করান। শিক্ষার্থীরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে তাঁর সঙ্গে কণ্ঠ মিলিয়ে এই অঙ্গীকার করেন।

পুরস্কার বিতরণের আগে এক মিনিট পর্বে অতিথিরা সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক ইকবাল মতিন অমসৃন খেজুর গাছ থেকে মিষ্টি রস বের করার ঘটনার সঙ্গে তুলনা করে গণিতের অধ্যয়ন করার কথা বলেন। কথা শেষ করার আগে তিনি বলেন, গনিত কঠিন না কি সহজ? এই প্রশ্নের উত্তরে নিচে বসা খুদে গণিতবিদেরা একসঙ্গে জবাব দেয় উৎসবে এসে সহজ হয়ে গেছে গণিত। উৎসবের সমাপনী পর্বে গণিত উৎসবে বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয়। এতে প্রাথমিক ক্যাটাগরিতে ১২, জুনিয়রে ২৪, সেকেন্ডারিতে ১৭ জনকে পদক ও টি শার্ট দেওয়া হয়।