Ad Space

তাৎক্ষণিক

রাজশাহীর দুই এমপির বিরুদ্ধে ফের আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ

ডিসেম্বর ২১, ২০১৬

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহী-১ আসনের সংসদ সদস্য ওমর ফারুক চৌধুরী ও রাজশাহী-৩ আসনের সংসদ সদস্য আয়েন উদ্দিনের বিরুদ্ধে ফের নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়েছে। বুধবার সকালে জেলা পরিষদ নির্বাচনের চেয়ারম্যান প্রার্থী মোহাম্মদ আলী সরকার তাদের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ দায়ের করেন।

নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার ও রাজশাহীর জেলা প্রশাসক কাজী আশরাফ উদ্দীনের কাছে এ অভিযোগ দেওয়া হয়। আনারস প্রতীকের প্রার্থী মোহাম্মদ আলী সরকার নিজেই বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

অভিযোগে তিনি বলেছেন, মঙ্গলবার এমপি ওমর ফারুক চৌধুরী গোদাগাড়ী মডেল থানা চত্বর থেকে প্রায় এক কিলোমিটার দক্ষিণে পদ্মা নদীর চরে ভোটারদের নিয়ে গিয়ে চেয়ারম্যান প্রার্থী মাহবুব জামান ভুলুকে ভোট দেয়ার নির্দেশ দেন। একই দিন পবা উপজেলার হরিপুর ইউনিয়ন পরিষদে ভোটারদের জড়ো করে মাহবুব জামান ভুলুকে ভোট দেয়ার নির্দেশ দেন এমপি আয়েন উদ্দিন। এতে নির্বাচনের আচরণবিধি লঙ্ঘন হয়।

এর আগে গত সোমবার মোহনপুরের ত্রিমোহনী এলাকায় পিকনিকের নামে ভোটারদের ডেকে মাহবুব জামান ভুলুর পক্ষে প্রচারণা চালান এমপি আয়েন। এ ঘটনায় মঙ্গলবারও তার বিরুদ্ধে রিটার্নিং অফিসারের কাছে অভিযোগ দেন মোহাম্মদ আলী সরকার।

এদিকে গত ১৭ ডিসেম্বর তানোরের ভোটারদের নিয়ে পিকনিকের নামে নির্বাচনী সভা করেন এমপি ওমর ফারুক চৌধুরী। ওই দিন রাজশাহী-৫ আসনের এমপি আবদুল ওয়াদুদ দারাও পিকনিকের নামে পুঠিয়ায় ভোটারদের নিয়ে নির্বাচনী সভা করেন।

এই দুই এমপিই আচরণবিধি লঙ্ঘন করে প্রার্থী মাহবুব জামান ভুলুর পক্ষে ভোট চান। এ নিয়ে গত ১৮ ডিসেম্বর এই দুই এমপির নামে রিটার্নিং অফিসারের কাছে লিখিত অভিযোগ দেন অপর প্রার্থী মোহাম্মদ আলী সরকার।

এ ঘটনায় ১৯ ডিসেম্বর এই দুই এমপিকে শোকজ করা হয়েছে বলে জানিয়েছিলেন নির্বাচনের সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও রাজপাড়া থানা নির্বাচন কর্মকর্তা শহীদুল হক প্রামানিক।

এদিকে এমপি আয়েন উদ্দিন ও ওমর ফারুক চৌধুরীর বিরুদ্ধে বুধবার আবারো অভিযোগ দায়েরের পর তিনি জানান, অভিযোগপত্রটি তিনি পেয়েছেন। এ বিষয়ে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।