Ad Space

তাৎক্ষণিক

  • শ্রমিক ইউনিয়নের নির্বাচনে সংঘর্ষ, উদ্বিগ্ন সাংসদ বাদশা– বিস্তারিত....
  • ভোটের ‘ধর্মীয় সেন্টিমেন্টে’ ভাস্কর্য সরানোর ‘পক্ষে’ আ’লীগ-বিএনপি– বিস্তারিত....
  • আমরা আজ হেরে গেলাম : ভাস্কর মৃণাল হক– বিস্তারিত....
  • নতুনদের জন্য ভিডিও এডিটিং কোর্স নিয়ে এলো বিআইটিএম– বিস্তারিত....
  • সৌদিতে রোজা শুরু শনিবার, বাংলাদেশে রবিবার– বিস্তারিত....

মোহনপুরে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে কমলো অতিরিক্ত ফি

ডিসেম্বর ১৯, ২০১৬

মোহনপুর প্রতিনিধি : মোহনপুর গার্লস ডিগ্রি কলেজে ২০১৭ সালে উচ্চ মাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) পরীক্ষায় ফরম পুরণে অতিরিক্ত ফি বাতিল করেছে কলেজ কর্তৃপক্ষ। জানা যায়, অতিরিক্ত ফি বাতিলের দাবিতে রোববার সকালে অধ্যক্ষকে অবরুদ্ধ করে বিক্ষোভ করে শিক্ষার্থীরা। সোমবার আবারো বিক্ষোভ করলে বাধ্য হয়ে অতিরিক্ত ফি কমিয়ে দেয় কলেজ কর্তৃপক্ষ।

কলেজের একটি সূত্র জানায়, রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক তরুন কুমার সরকার স্বাক্ষরিত নির্দেশ উপেক্ষা করে মোহনপুর গার্লস ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ আবদুল মালেক মন্ডল ও উপধাক্ষ্য আবদুল আলিম কাজী যোগসাজসে ফরম পুরণের অতিরিক্ত টাকা আদায়ের জন্য অধ্যক্ষের মনগড়া আহবায়ক কমিটি গঠন করেন।

শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করেন, শিক্ষার্থীদের নিকট হতে বিজ্ঞান বিভাগের জন্য ৩ হাজার ১শত ৯০ টাকা, বাণিজ্যিক বিভাগ ও মানবিক বিভাগের ২ হাজার ৯শত ৯০ টাকা আদায় করার নির্দেশ দেন অধ্যক্ষ।

এইচএসসি পরীক্ষার্থী সম্পা খাতুন বলেন, রোববার সকাল থেকে অতিরিক্ত ফি নিলে প্রায় ৭০জন শিক্ষার্থী অধ্যক্ষ ও উপধাক্ষ্যকে অবরুদ্ধ করে বিক্ষোভ করা হলে শিক্ষকরা কৌশলে কলেজ থেকে বেড়িয়ে যান। সোমবার আবারো বিক্ষোভ করা হলে বাধ্য হয়ে আহবায়ক কমিটি অতিরিক্ত ৭শত টাকা কমিয়ে আনা হলে তা মেনে নেয় আন্দোলনরত ছাত্রীরা।

কলেজের উপধাক্ষ্য আবদুল আলিম কাজী ফরম পুরনে ছাত্রীদের নিকট হতে কত টাকা নিয়েছেন জানতে চাইলে বিষয়টি এড়িয়ে  গিয়ে বলেন, ‘রশিদ দেখে বলতে পারব’।

কলেজ অধ্যক্ষ আবদুল মালেক মন্ডল দাবি করেন, শিক্ষা বোর্ড কর্তৃক নির্ধারিত ফি বাহিরে ফরম পুরণে আহবায়ক কমিটি কোন অতিরিক্ত টাকা গ্রহণ করেননি। শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি কোন কথা বলতে রাজি হননি।