Ad Space

তাৎক্ষণিক

সরকারি কর্মচারীর সন্তানদের শিক্ষাবৃত্তির দরখাস্ত আহ্বান

ডিসেম্বর ১৩, ২০১৬

সাহেব-বাজার ডেস্ক : সরকারি কর্মচারীর সন্তানদের শিক্ষাবৃত্তির জন্য দরখাস্ত আহ্বান করা হয়েছে। বাংলাদেশ কর্মচারী কল্যাণ বোর্ড থেকে ২০১৬-২০১৭ অর্থবছরের জন্য সরকারের বেসামরিক খাতের ১১ থেকে ২০ গ্রেডে বেতন গ্রহণকারী কর্মরত সরকারি কর্মচারীর (ডাক, তার ও দূরালাপনী, বাংলাদেশ রেলওয়ে, বিজিবি ও বাংলাদেশ পুলিশ বিভাগে নিযুক্ত কর্মচারীগণ ব্যতীত) সন্তানদের শিক্ষাবৃত্তি/শিক্ষাসহায়তা এবং সরকারি ও তালিকাভুক্ত স্বায়ত্তশাসিত সংস্থার সকল গ্রেডের অবসরপ্রাপ্ত ও মৃত কর্মচারীর সন্তানদের শিক্ষাবৃত্তির জন্য নির্ধারিত ফরমে দরখাস্ত আহ্বান করা হয়েছে।

দরখাস্তের নিয়মাবলিতে উল্লেখ করা হয়েছে, সরকারের বেসামরিক খাতের ১১ থেকে ২০ গ্রেডে বেতন গ্রহণকারী কর্মরত সরকারি কর্মচারীর ষষ্ঠ শ্রেণি থেকে সর্বোচ্চ পর্যায়ে অধ্যয়নরত অনধিক ২ সন্তানদের জন্য ফরম নম্বর ১০ এ শিক্ষাবৃত্তি/শিক্ষাসহায়তা এবং সরকারি ও তালিকাভুক্ত স্বায়ত্তশাসিত সংস্থার সকল গ্রেডের অবসরপ্রাপ্ত ও মৃত কর্মচারীর নবম শ্রেণি থেকে সর্বোচ্চ পর্যায়ে অধ্যয়নরত অনধিক ২ সন্তানের জন্য ফরম নম্বর ৩ এ শিক্ষাবৃত্তির জন্য আবেদন করতে পারবেন।

১১ থেকে ২০ গ্রেডে বেতন গ্রহণকারী কর্মরত সরকারি কর্মচারীর সন্তান যারা ষষ্ঠ শ্রেণি থেকে একাদশ/দ্বাদশ/সমমানের শ্রেণিতে বোর্ড/বার্ষিক পরীক্ষায় প্রত্যেক বিষয়ে লেটার গ্রেড এ পেয়ে জিপিএ ৫ পেয়েছে তারা শিক্ষাবৃত্তি এবং যারা ন্যূনতম জিপিএ ৩/গড়ে শতকরা ৫০ নম্বর পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছে তারা শিক্ষাসহায়তা পাওয়ার যোগ্য হবে। ১১ থেকে ২০ গ্রেডে বেতন গ্রহণকারী কর্মরত সরকারি কর্মচারীর সন্তান যারা মহাবিদ্যালয়/বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতক পর্যায়ে (সমমানের) প্রথম বছরে অধ্যয়নরত তারা উচ্চমাধ্যমিক ও সমমানের পরীক্ষায় প্রত্যেক বিষয়ে লেটার গ্রেড এ পেয়ে জিপিএ ৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়ে থাকলে শিক্ষাবৃত্তি এবং যারা ন্যূনতম জিপিএ ৩/গড়ে শতকরা ৫০ নম্বর পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছে তারা শিক্ষাসহায়তা পাওয়ার যোগ্য হবে। স্নাতক (সমমানের) পর্যায়ে দ্বিতীয় থেকে চতুর্থ/পঞ্চম বর্ষ পর্যন্ত যে সকল ছাত্রছাত্রী পূর্ববর্তী বাৎসরিক/সেমিস্টার/টার্ম ফাইনাল পরীক্ষায় সিজিপিএ ৪ এর মধ্যে ৩.৫ থেকে ৪ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছেন তারা শিক্ষাবৃত্তি এবং যারা ন্যূনতম সিজিপিএ ২.৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছেন তারা শিক্ষাসহায়তা পাওয়ার যোগ্য হবেন।

১১ থেকে ২০ গ্রেডে বেতন গ্রহণকারী কর্মরত সরকারি কর্মচারীর সন্তান যারা মহাবিদ্যালয়/বিশ্ববিদ্যালয়ে পর্যায়ে স্নাতকোত্তর (সমমানের) পরীক্ষায় সিজিপিএ ৪ এর মধ্যে ৩.৫ থেকে ৪ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছেন তারা শিক্ষাবৃত্তি এবং যারা ন্যূনতম সিজিপিএ ২.৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছেন তারা শিক্ষাসহায়তা পাওয়ার যোগ্য হবেন। সরকারি ও তালিকাভুক্ত স্বায়ত্তশাসিত সংস্থার সকল গ্রেডের অবসরপ্রাপ্ত ও মৃত কর্মচারীর নবম শ্রেণি থেকে স্নাতকোত্তর (সমমানের) পর্যায়ে অধ্যয়নরত সন্তানগণ যারা ন্যূনতম জিপিএ ৩/সিজিপিএ ২.৫/গড়ে শতকরা ৫০ নম্বর পেয়ে পরবর্তী শ্রেণিতে উত্তীর্ণ হয়েছেন তারাই শুধু শিক্ষাবৃত্তি পাওয়ার যোগ্য হবেন।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক/কলেজের অধ্যক্ষ/বিশ্ববিদ্যালয়ের সংশ্লিষ্ট বিভাগীয় প্রধান কর্তৃক সত্যায়িত মার্কশিট/সার্টিফিকেটের ফটোকপি আবেদনপত্রের সাথে জমা দিতে হবে। আবেদন ফরমের প্রতিটি কলাম যথাযথভাবে পূরণ করে আগামী বছরের ৩১ জানুয়ারির মধ্যে নিজ-নিজ অফিস কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে ঢাকা মহানগরীর ক্ষেত্রে মহাপরিচালক, বাংলাদেশ কর্মচারী কল্যাণ বোর্ড, প্রথম ১২ তলা সরকারি অফিস ভবন (১১ তলা), সেগুনবাগিচা, ঢাকা এবং অন্যান্য বিভাগের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ কর্মচারী কল্যাণ বোর্ডের সংশ্লিষ্ট বিভাগীয় উপপরিচালক বরাবরে প্রেরণ করতে হবে। অসম্পূর্ণ ও সন্দেহযুক্ত আবেদন বাতিল বলে গণ্য হবে। নির্ধারিত তারিখের পর প্রাপ্ত কোনো আবেদন বিবেচনা করা হবে না।