Ad Space

তাৎক্ষণিক

অনুন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থায় পিছিয়ে পড়ছে রাজশাহী

ডিসেম্বর ১, ২০১৬

নিজস্ব প্রতিবেদক : শুধুমাত্র অনুন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থার কারণে রাজশাহী অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি অর্জন থেকে পিছিয়ে পড়ছে। আকাশপথ, পানিপথ, রেলপথ ও সড়কপথের মধ্যে রাজশাহীর পণ্য রপ্তানীর জন্য শুধু সড়কপথই একমাত্র ভরসা। কিন্তু এটি যেমন ব্যায়বহুল, তেমনি সময় সাপেক্ষ। ফলে এ অঞ্চল থেকে পণ্য রপ্তানীতে আগ্রহ হারাচ্ছেন রপ্তানীকারকেরা। এতে অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি অর্জন কঠিন হয়ে পড়েছে।

বৃহস্পতিবার সকালে আঞ্চলিক রপ্তানী উন্নয়ন ব্যুরোর এক সেমিনারে বক্তারা এসব কথা বলেন। রাজশাহী মহানগরীর সাহেববাজারে রপ্তানী উন্নয়ন ব্যুরোর সভাকক্ষে এই সেমিনারের আয়োজন করা হয়। ‘উিউটি ফ্রি এন্ড কৌটা ফ্রি মার্কেট একসেস প্রোভাইডেড বাই সার্ক কান্ট্রিজ, চায়না, কোরিয়া এন্ড আদার্স’ শীর্ষক এই সেমিনারে রাজশাহী অঞ্চলের ৫০ জন ব্যবসায়ী ও নারী উদ্যোক্তা অংশ গ্রহণ করেন।

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টায় এর উদ্বোধন করেন সেমিনারের প্রধান অতিথি রাজশাহী চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি মনিরুজ্জামান মনি। বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ রেশম শিল্প মালিক সমিতির সভাপতি লিয়াকত আলী ও রাজশাহী উইমেন চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি অধ্যাপিকা রোজেটি নাজনীন। এতে সভাপতিত্ব করেন রাজশাহী রপ্তানী উন্নয়ন ব্যুরোর পরিচালক আলমগীর সিদ্দিকী।

সেমিনারে বক্তারা বলেন, অর্থনীতির মূল চালিকা শক্তি হলো রপ্তানী। আর রপ্তানী করতে হলে উন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থা থাকতে হবে। পাশাপাশি শিক্ষাগত যোগ্যতাও থাকা লাগবে। রাজশাহী অঞ্চল থেকে অনেক পণ্য বিদেশে রপ্তানী করা সম্ভব। কিন্তু যোগাযোগ ব্যবস্থা নাজুক হওয়ায় পণ্য রপ্তানী করা সম্ভব হচ্ছে না।

তারা বলেন, রপ্তানী কার্যক্রমকে ত্বরান্বিত করতে রাজশাহীর সঙ্গে সারাদেশের রেলপথ ও পানিপথের যোগাযোগ নিশ্চিত করতে হবে। কৃষিপণ্য বিদেশে পাঠানোর জন্য কার্গো বিমানের ব্যবস্থা করতে হবে। পাশাপাশি শিক্ষার হার বৃদ্ধিতেও কাজ করতে হবে। তা না হলে এখান থেকে পণ্য রপ্তানী সম্ভব নয়। আর এটি না হলে যুগ যুগ ধরে পিছিয়েই থাকবে রাজশাহী।

সেমিনারের দ্বিতীয় পর্বে রপ্তানী উন্নয়ন ব্যুরোর উপ-পরিচালক সামসুদ্দিন আহাম্মেদ রিসোর্স পার্সন হিসেবে অংশগ্রহণকারীদের রপ্তানী কার্যক্রমের বিভিন্ন বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেন। সেমিনার পরিচালনা করেন রাজশাহী রপ্তানী উন্নয়ন ব্যুরোর গবেষণা কর্মকর্তা কাজী সাইদুর রহমান।