Ad Space

তাৎক্ষণিক

রাসেল হত্যা : থানায় মামলা, লাশ নিয়ে বিক্ষোভ স্বজনদের

নভেম্বর ৩০, ২০১৬

নিজস্ব প্রতিবেদক :  রাজশাহী মহানগরীর বুলনপুর এলাকায় রাসেল আলী (১৯) নামে এক যুবককে প্রকাশ্যে ছুরিকাঘাত করে হত্যার ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। মঙ্গলবার রাতে নিহতের বড় ভাই জুয়েল রানা (২৫) বাদী হয়ে নগরীর রাজপাড়া থানায় মামলাটি দায়ের করেছেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা রাজপাড়া থানার ওসি (তদন্ত) শেখ মোহাম্মদ গোলাম মোস্তফা বুধবার বিকেলে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, মামলায় পাঁচজনের নাম উল্লেখ করে তাদের আসামি করা হয়েছে। এ ছাড়া তিন-চারজন অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিকে আসামি করা হয়েছে।

এদিকে হত্যাকাণ্ডের পর আটক শাকিল হোসেন (২২) নামে এক যুবককে এ মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। মামলার এজাহারেও তার নাম রয়েছে। শাকিল বুলনপুর এলাকার মাসুদ পারভেজের ছেলে। মঙ্গলবার দুপুরে তাকে আদালতে তোলে পুলিশ।

এ সময় নিহত রাসেলের লাশ নিয়ে আদালত চত্বরে বিক্ষোভ করেন তার স্বজনরা। বিক্ষোভকারীরা মামলার সব আসামিকে দ্রুত গ্রেফতারের দাবি জানান। পরে আদালত চত্বর থেকে লাশ কবরস্থানে নিয়ে দাফন করা হয়।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা শেখ মোহাম্মদ গোলাম মোস্তফা বলেন, ‘এটি ঠিক বিক্ষোভ নয়, নিজেদের আবেগ থেকে স্বজনরা লাশ নিয়ে কবরস্থানে যাওয়ার আগে আদালত চত্বরে গিয়েছিলেন।’

তিনি জানান, মামলায় গ্রেফতার শাকিলকে আদালতে হাজির করে পাঁচ দিনের রিমান্ডের আবেদন করা হয়েছে। আদালত তাকে কারাগারে পাঠিয়েছেন। তবে রিমান্ড আবেদনের শুনানি হয়নি। মামলার অন্য আসামিরা পলাতক আছেন। তাদের গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে।

প্রসঙ্গত, কবুতর নিয়ে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে মঙ্গলবার দুপুরে বুলনপুর ঘোষপাড়া এলাকার হাফিজুল ইসলামের ছেলে রাসেলকে ছুরিকাঘাত করে কয়েকজন দুর্বৃত্ত। রাসেল রাজশাহী বীমা করপোরশনে দৈনিক মজুরির ভিত্তিতে পিয়ন হিসেবে চাকরি করতেন। অফিস থেকে দুপুরে বাসায় খেতে যাওয়ার পথে বুলনপুর এলাকায় তার ওপর হামলার ঘটনা ঘটে।

হামলাকারীরা তার বুকে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। পরে তাকে হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এদিকে রাসেলকে হাসপাতালে নেয়ার পর সেখানে তার অবস্থা পর্যবেক্ষণ করতে যান হামলাকারীদের একজন শাকিল। এ সময় নিহতের স্বজনরা তাকে ধরে মারপিট শুরু করেন। পরে পুলিশ তাকে আটক করে।