Ad Space

তাৎক্ষণিক

  • ‘আপত্তিকর’ কাজে বাধা দেয়ায় প্রহরীকে মারধর– বিস্তারিত....
  • বামশক্তি কনসোলিটেড হয়ে দাঁড়াতে না পারলে ফিল ইন দ্য ব্লাংক করে ফেলবে ধর্মীয় শক্তি : আবুল বারকাত– বিস্তারিত....
  • মধ্যম আয়ের দেশ গড়তে হলে ভ্যাটের বিকল্প নেই : ভূমিমন্ত্রী– বিস্তারিত....
  • নাটোরে নির্মাণের ৯ মাসেই ভেঙে পড়েছে কালভার্ট– বিস্তারিত....
  • নাটোরে ইয়াবাসহ চার যুবক আটক– বিস্তারিত....

অসময়ে ছুটছে কুমিল্লার জয়রথ

নভেম্বর ৩০, ২০১৬

সাহেব-বাজার ডেস্ক : বিপিএলের গেল আসরের চ্যাম্পিয়ন তারা। কিন্তু চলতি আসরে তাদের শুরুটা হল ভয়াবহ। একের পর এক ম্যাচ হেরে বিপিএলের চলতি আসর থেকে তাদের বিদায় এক প্রকার নিশ্চিত হয়ে গেছে।

কিন্তু শেষ সময়ে এসে জ্বলে উঠেছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। বরিশাল বুলসকে হারানোর পর বুধবার তারা হারিয়ে দিল রাজশাহী কিংসকে। ছুটছে তাদের জয়রথ। কিন্তু সেটা বড্ড অসময়ে।

১০ ম্যাচে কুমিল্লার জয় তিনটিতে। তিনটি জয়ের দুটিই এসেছে রাজশাহী কিংসের বিপক্ষে। চট্টগ্রামে প্রথম দেখায় রাজশাহীকে ৩২ রানে হারিয়েছিল। আজ হারাল ৮ উইকেটের ব্যবধানে ৮ বল হাতে রেখে।

১০ ম্যাচের ৩টিতে জিতে ৬ পয়েন্ট নিয়ে নেট রান রেটে এগিয়ে থাকায় পয়েন্ট টেবিলে উন্নতি ঘটেছে কুমিল্লার। তারা উঠে এসেছে ষষ্ঠ স্থানে। অন্যদিকে পয়েন্ট টেবিলের তলানিতে নেমে গেছে বরিশাল বুলস।

বুধবার সন্ধ্যায় টস জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন রাজশাহী কিংসের অধিনায়ক ড্যারেন স্যামি। ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১২৪ রান সংগ্রহ করে রাজশাহী কিংস। ১২৫ রানের জয়ের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ১৮.২ ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে জয়ের বন্দরে নোঙর করে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা।

ব্যাট হাতে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের জয়ে অবদান রাখেন মারলন স্যামুয়েলস ও আহমেদ শেহজাদ। শেহজাদ ৪৫ বলে ৪ চার ও ১ ছক্কায় ৪৬ রান করে আউট হন। স্যামুয়েলস ৪১ বলে ২চার ও ৪ ছক্কায় ৫৫ রানের ইনিংস খেলে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন। তার সঙ্গে খালিদ লতিফ ৭ রানে অপরাজিত থাকেন।

কুমিল্লার যে ২টি উইকেটের পতন ঘটেছে তার একটি নিয়েছেন মেহেদী হাসান মিরাজ। অপরটি নিয়েছেন ফরহাদ রেজা।

ম্যাচসেরা নির্বাচিত হয়েছেন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের বোলার মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন।

এর আগে রাজশাহীর ইনিংসে ব্যাট হাতে জেমস ফ্রাঙ্কলিন অপরাজিত ৪৪ রান করেন। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২০ রান করেন মুমিনুল হক। নুরুল হাসান সোহান ১৭ ও ফরহাদ রেজা ১৩ রান করেন। বাকিদের কেউ দুই অঙ্কের কোটা ছুঁতে পারেননি।

বল হাতে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন ৩টি উইকেট নেন। ২টি উইকেট নেন অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা।