Ad Space

তাৎক্ষণিক

  • ‘আপত্তিকর’ কাজে বাধা দেয়ায় প্রহরীকে মারধর– বিস্তারিত....
  • বামশক্তি কনসোলিটেড হয়ে দাঁড়াতে না পারলে ফিল ইন দ্য ব্লাংক করে ফেলবে ধর্মীয় শক্তি : আবুল বারকাত– বিস্তারিত....
  • মধ্যম আয়ের দেশ গড়তে হলে ভ্যাটের বিকল্প নেই : ভূমিমন্ত্রী– বিস্তারিত....
  • নাটোরে নির্মাণের ৯ মাসেই ভেঙে পড়েছে কালভার্ট– বিস্তারিত....
  • নাটোরে ইয়াবাসহ চার যুবক আটক– বিস্তারিত....

বাঘায় শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে মামলা

নভেম্বর ২৭, ২০১৬

নিজস্ব প্রতিবেদক, বাঘা : রাজশাহীর বাঘায় এক মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নিয়ম বহির্ভূতভাবে প্রধান শিক্ষক নিয়োগের অভিযোগ এনে আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে। উপজেলা কৃষকলীগের সাবেক সভাপতি আবদুর রহমানের ছেলে এ.এইচ,এম জামান বাদি হয়ে রাজশাহী সিনিয়র সহকারি জজ আদালতে এ মামলাটি দায়ের করেছেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলা সদরে বাঘা উচ্চ বিদ্যালয়ের তৎকালিন প্রধান শিক্ষক শাহাজান আলীর চাকরির মেয়াদ পূর্ণ হয় ২০১২ সালে। তারপর তিনি অতিরিক্ত সময় সেই প্রতিষ্ঠানে শিক্ষা বোর্ডের অনুমোদন ছাড়াই কর্মরত ছিলেন। ওই সময়ে ব্যক্তিগত স্বার্থ চরিতার্থ করার লক্ষে ২০১৩ ইং সালে স্থানীয় পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেন এবং কতিপয় ব্যক্তির যোগসাজসে তার শ্যালক মোহাম্মদ আলী দেওয়ানকে প্রধান শিক্ষক পদে নিয়োগ সম্পূর্ণ করেন।

বিষয়টি নিয়ে গত ১৫ ফেব্রুয়ারী মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা রাজশাহী অঞ্চলের উপ-পরিচালক বরাবর লিখিত অভিযোগও করেন এ,এইচ,এম জামান। এ অভিযোগ তদন্ত করে জেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য বলা হলেও তা থাকে ধরা-ছোয়ার বাইরে। এর ফলে তিনি গত মাসে আদালতের শরনাপন্ন হন।

সূত্রে জানা গেছে, এ মামলার বিবাদি করা হয়েছে বাঘা মাধ্যমিক উচ্চ বিদ্যালয়ের তৎকালিন ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক ও বর্তমান প্রধান শিক্ষককে।  এর ফলে চলতি মাসের ২৯ তারিখে বিবাদীদের আদালতে হাজির হওয়ার জন্য সমন জারি করা হয়েছে।

আদালতের নোটিশ জারিকারক তাইজুদ্দীন জানান,আদালতে হাজিরা সংক্রান্ত বিষয়ে সুমন বিবাদিদের কাছে পৌঁছানো হয়েছে।

এ বিষয়ে সাবেক প্রধান শিক্ষক শাজাহান আলী বলেন, আমার চাকরির মেয়াদ শেষ হওয়ার পর স্কুল পরিচালনা পরিষদ আমাকে অতিরিক্ত দায়িত্বে রেখে ছিলেন। পরবর্তীতে সবাই মিলে আমার শ্যালককে প্রধান শিক্ষক নিয়োগ দিয়েছেন।