Ad Space

তাৎক্ষণিক

সাঁওতালদের ধান কাটার সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত

নভেম্বর ২৩, ২০১৬

সাহেব-বাজার ডেস্ক : গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জের সাহেবগঞ্জে সাঁওতালরা যে জমিতে আমন ধান চাষ করেছিল তা কাটার জন্য তাঁদের পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত কোন উদ্যোগ নেয়া হয়নি। ফলে জমির পাকা ধান ঝরে পড়ে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আগেই হাইকোর্টের নির্দেশনা মোতাবেক মিল কর্তৃপক্ষ তা কেটে নিয়ে তালিকা মোতাবেক সাঁওতালদের মধ্যে বন্টন করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের লক্ষ্যে জেলা প্রশাসক আবদুস সামাদ, পুলিশ সুপার আশরাফুল ইসলাম, চিনিকলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবদুল আউয়াল, গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবদুল হান্নানসহ কৃষি বিভাগ, ভূমি অফিস ও সাহেবগঞ্জ বাগদা ফার্মের কর্মকর্তারা মঙ্গলবার সরেজমিনে ধান ক্ষেত এলাকা পরিদর্শন করেন।

এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক আবদুস সামাদ বলেন, গোবিন্দগঞ্জের উপজেলা ভূমি অফিস ও কৃষি বিভাগের সরেজমিন তদন্তে জানা গেছে, সাঁওতালদের বসতি এলাকায় ৪৫.৫০ একর জমিতে আমন ধান চাষ করা হয়েছে। এরমধ্যে এ পর্যন্ত ৩০ একর জমির ধান এখন কাটার উপযোগি। আরও ১৫.৫০ একর জমির ধান এখনও পাকার অপেক্ষায়।

তিনি বলেন, কৃষি বিভাগের বক্তব্য অনুযায়ি যে সমস্ত জমির ধান পেকেছে তা ৪ থেকে ৫ দিন পরে কাটলেও কোন ক্ষতির আশংকা নেই। সেজন্য সাঁওতালদের সাথে যোগাযোগ করা হচ্ছে যেন তাঁরা তালিকা প্রদান করে ওই সময়ের মধ্যে ধান কেটে নিয়ে যায়।

এসময়ের মধ্যে ধান কাটার ব্যাপারে সাঁওতালদের পক্ষ থেকে কোন সাড়া পাওয়া না গেলে হাইকোর্টের নির্দেশনা বাস্তবায়নে মিল কর্তৃপক্ষ নিজের উদ্যোগে ধান কেটে নেবে বলে তিনি জানান।